খেলা লিড নিউজ সর্বশেষ খবর

নেইমারের পিএসজি ছাড়ার খবর উড়িয়ে দিলেন তার বাবা

যখন কিলিয়ান এমবাপ্পেও পর হয়ে যাচ্ছেন, যখন নেইমারকে নিয়ে নতুন স্বপ্ন বোনা শুরু পিএসজির; তখনই এই ব্রাজিলিয়ান বলে দিলেন তিনি আর প্যারিসে থাকতে চান না। একপ্রকার ঝোপ বুঝে কোপ মারার মতো অবস্থা। আবার কাটা ঘায়ে নুনের ছিটাও বলা যায়। কারণ, পিএসজি এমনিতেই বিপদে। লিওনেল মেসিকে রাখতে পারেনি, তিনি চলে গেছেন ইন্টার মায়ামিতে।

সেই ক্ষত শুকাতে না শুকাতে এমবাপ্পে বেঁকে বসেন। জানিয়ে দেন আর চুক্তি বাড়াবেন না। তাঁকে আরেকটা মৌসুম বেচবেন, না রাখবেন– এ নিয়ে যখন চিন্তা করে কূল পাচ্ছে না; তখনই এলো নেইমারের চিরকুট। ফরাসি দৈনিক এল ইকুয়েপে খবরটা প্রকাশ করে সবার আগে। তারা নিজেদের সূত্রের বরাত দিয়ে জানায়, নেইমার এরই মধ্যে পিএসজির মালিকপক্ষকে বলে দিয়েছেন তিনি এই গ্রীষ্মেই ক্লাব ছাড়তে চান।

এখন পিএসজি যেন একূল-ওকূল, সব কূলই হারাতে বসেছে! তারা ভেবেছিল মেসি-এমবাপ্পে গেলেও নেইমারের মতো বড় তারকাকে নিয়ে নতুন করে একটা আক্রমণভাগ গড়া যাবে। সে জন্য নেইমারকে চেনেজানে এমন একজন লুইস এনরিকে কোচ করে এনেছিল। শেষ পর্যন্ত তাদের সব পরিকল্পনা ভেস্তে যেতে বসেছে। যদিও নেইমারের সঙ্গে পিএসজির চুক্তি ২০২৫ সালের জুন পর্যন্ত। তাই এমবাপ্পের মতো তাঁকে নিয়ে বড় সংকটে পড়তে হবে না ক্লাবটির। তবে রাগ করে ক্লাব ছাড়তে চাইলে তাঁকে বুঝিয়ে আগের অবস্থায় ফেরানো যাবে। বিপরীত কিছু হলে পিএসজির জন্য সামনের পথটা আরও কঠিন থেকে কঠিন হয়ে যাবে।

আপাতত নেইমারের চাওয়া বার্সায় ফিরে যাওয়া, তাও আবার লোনে। অর্থাৎ নেইমার ভালো করেই জানে বার্সার এখন মোটা অঙ্কের ফি দিয়ে তাঁকে কেনার সামর্থ্য নেই। তাই তাদের কাজটা সহজ করেই পিএসজি ছাড়তে চাইছেন নেইমার। পিএসজি এমনটা হলে দিলে তো!

২০১৭ সালে যে নেইমারের জন্য রীতিমতো যুদ্ধ করে পিএসজি-বার্সা। ২২২ মিলিয়ন ইউরোর রেকর্ড ফি দিয়ে তাঁকে প্যারিসে এনেছিল তারা। এখন সেই খরুচে নেইমারকে কীভাবে ফ্রিতে যেতে দেবে। অবশ্য চেলসি তাঁর জন্য বড় অঙ্কের অর্থ খরচ করতে রাজি। তারা আগেও পিএসজির কাছে প্রস্তাব দিয়েছিল। মেসির পর এমবাপ্পে চলে যাওয়ার কথা বলায় নেইমারকে ছাড়তে চায়নি। এখন যখন নেইমারই থাকতে চাইছেন না, তখন তাদের সঙ্গে নতুন করে আলাপ করতেই পারে খেলাইফিরা।

তবে নেইমারের দলবদল নিয়ে মুখ খুলেছেন তাঁর বাবা নেইমার দা সিলভা সান্তোস, যিনি একই সঙ্গে নেইমারের এজেন্টও বটে। তিনি এই খবরকে গুঞ্জন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন এবং সংবাদমাধ্যম লেকিপকে একহাত নিয়েছেন। নেইমারের পিএসজির ছাড়ার খবর নিয়ে লেকিপের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে তাঁর বাবা বলেছেন, ‘আমি এমন খবর নিশ্চিত করতে পারি না, যা ঘটেইনি। লেকিপ এখন লে’ফেইক।’