১০ই মাঘ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ, বুধবার, ২৩শে জানুয়ারি, ২০১৯ ইং, রাত ১০:০৮
জাতীয়, ঢাকা, প্রধান খবর, রাজনীতি, সারাদেশ, স্বাস্থ্য অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হচ্ছে দেখে ভারত আনন্দিত: শ্রিংলা

অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হচ্ছে দেখে ভারত আনন্দিত: শ্রিংলা

Post by: সম্পাদক on নভেম্বর ১৪, ২০১৮ | ১১:২২ অপরাহ্ণ in জাতীয়,ঢাকা,প্রধান খবর,রাজনীতি,সারাদেশ,স্বাস্থ্য

হটনিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, বাংলাদেশে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হতে যাচ্ছে দেখে ভারত আনন্দিত। তারা চায় বাংলাদেশে গণতন্ত্রের ধারা সব সময়ে অব্যাহত থাকুক এবং নির্ধারিত সময়ে সবার অংশগ্রহণে ভোটের মাধ্যমে সরকার গঠন হোক।সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সঙ্গে বুধবার সাক্ষাৎ করতে এসে হাইকমিশনার এ কথা বলেন।এ সময়ে মন্ত্রী বলেন, সরকার সংবিধানসম্মতভাবে সকল দলের অংশ গ্রহণের মধ্য দিয়ে নির্বাচনের জন্য সর্বদা বদ্ধপরিকর। সব দল নির্বাচনে অংশ নেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও তাদের অভিনন্দন জানিয়েছেন।
বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বর্তমানে সর্বোচ্চ বন্ধুত্বমূলক সম্পর্ক বিরাজ করছে এ কথা জানিয়ে তিনি বলেন, এই দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও উচ্চমাত্রায় নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে। বাংলাদেশের জনগণও স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের অবদানকে সবসময় কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করে।
ভারতের হাইকমিশনার বলেন, তাদের পররাষ্ট্র নীতিতে প্রতিবেশী দেশসমূহের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখাকে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। তার মধ্যে বাংলাদেশকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে তালিকার শীর্ষে রেখেছে ভারত। ভারত মনে করে বাংলাদেশকে সঙ্গে নিয়ে এই অঞ্চলের উন্নয়নে ইতিবাচক ভূমিকা রাখা সম্ভব হবে।
এ সময়ে মোহাম্মদ নাসিম জানান, ভারত সরকারের সহযোগিতায় যশোর, পাবনা, নোয়াখালী, কক্সবাজার, পটুয়াখালী ও জামালপুরে ৬টি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নির্মাণের কাজ প্রক্রিয়াধীন। ইতিমধ্যে দেশে নতুন ৩৬টি কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করার ক্ষেত্রে সেদেশের সরকারের সহযোগিতার কথা মন্ত্রী এ সময়ে স্মরণও করেন।
তিনি বলেন, শুধু স্বাস্থ্যখাত নয় বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ভারতের অবদান দুদেশের মধ্যকার সম্পর্ক উন্নয়নে প্রভাবক হিসেবে কাজ করছে।
এ সময়ে হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বাংলাদেশের চিকিৎসা শিক্ষার সাম্প্রতিক মানোন্নয়নের জন্য সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, প্রতিবছর ভারত থেকে আগত শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশের মেডিকেল কলেজগুলো থেকে পাস করে দেশে ফিরে গিয়ে মানসম্মত সেবা দিতে সক্ষম হচ্ছে। এ সময়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও ভারতীয় হাইকমিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Comment