জাতীয়

প্রত্যেক প্রবাসী বাংলাদেশি দেশের শুভেছা দূত’

1441025847আন্তর্জাতিক ডেস্ক, হটনিউজ২৪বিডি.কম ৩১ আগস্ট : প্রত্যেক প্রবাসী বাংলাদেশি বাংলাদেশের শুভেছা দূত বলে মন্তব্য করলেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী নুরুল ইসলাম। তিনি বলেন, প্রত্যেক প্রবাসী বাংলাদেশিকেই বাংলাদেশের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে কাজে লাগাতে চায় আমাদের সরকার। সোমবার ব্যাংককস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক স্থানীয় একটি হোটেলে আয়োজিত থাইল্যান্ডে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় মন্ত্রী একথা বলেন । দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অবদানের প্রশংসা করে মন্ত্রী থাইল্যান্ডের প্রবাসী বাংলাদেশিদেরকে তাদের নিজ নিজ অবস্থানে থেকে তাঁদের কর্ম, শিষ্টাচার, মেধা ও প্রজ্ঞা দিয়ে থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার আহ্বান জানান। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহনের পরে এটাই ছিল মন্ত্রীর প্রথম বিদেশ সফর। মতবিনিময় সভায় থাইল্যান্ডের ব্যাংকক, পাতায়া, ফুকেটসহ অন্যান্য শহর থেকে আগত আন্তর্জাতিক সংস্থা, বহুজাতিক কোম্পানি, থাইল্যান্ডের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত এবং ব্যবসায়ীসহ সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন । প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী বিদেশে যেকোন প্রয়োজনে এবং বিপদে-আপদে বাংলাদেশিদেরকে একে অপরকে সাহায্য করার অনুরোধ জানান এবং দেশে বৈধপথে রেমিটেন্স প্রেরণের আহ্বান জানান। বিমানবন্দরসহ অন্যান্য সার্ভিসের জায়গায় প্রবাসীদের হয়রানিমূলক আচরণের বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে মন্ত্রী তাঁর মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দেন। এ ছাড়া বিমানবন্দরে প্রবাসী যাত্রী সেবার মান উন্নয়নে এবং প্রবাসী কর্মীদের দেশে ফেরার পর নিরাপত্তা প্রদানে সকল প্রকার সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন। সভায় থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাইদা মুনা তাসনিম জানান, থাইল্যান্ড থেকে বাংলাদেশে বৈধপথে রেমিটেন্স প্রেরণের সুবিধার্থে তিনি থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের সরকারি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার বিষয়ে উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। রাষ্ট্রদূত আরও জানান, নার্সিং, হসপিটালিটি, হোটেল ম্যানেজমেন্ট এবং তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে থাইল্যান্ডের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে কারিগরি সহায়তায় বাংলাদেশি ছাত্র-ছাত্রীদের উচ্চ শিক্ষার সুযোগ সৃষ্টির বিষয়ে তিনি কাজ করে যাচ্ছেন। থাইল্যান্ডে দুইদিনব্যাপী সফরে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী দেশটির শ্রম সংস্কার কমিটির চেয়ারম্যান ও Thailand Employment Association এবং Manpower Recruitment Association of Thailand-এর ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সঙ্গে থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের শ্রমিক নিয়োগের সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি স্বল্প ব্যয়ে মর্যাদার সঙ্গে নিরাপদ অভিবাসন সুনিশ্চিত করার অঙ্গিকার করেন। সভায় প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী আরও বলেন যে, থাইল্যান্ডে বাংলাদেশের শ্রমিক নিয়োগের সম্ভাবনাকে ত্বরান্বিত করাই ছিল তার এ সফরের মূল উদ্দেশ্য। মন্ত্রী সমুদ্রপথে অবৈধভাবে বাংলাদেশিদের পাচার রোধে সরকার কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করছে বলে জানান।
হটনিউজ২৪বিডি.কম/এআর