ধর্ম প্রধান খবর হটনিউজ স্পেশাল

মেঘের কাছাকাছি বৌদ্ধ-বসতি!

skyঅনলাইন ডেস্ক : আকাশের বুকে পাহাড়। নীল-সাদার মেঘে ভেসে-ওঠা সবুজ বরণ। পাহাড় ঘেরা চারদিক। সেই পাহাড়ের কোল চুয়ে বয়ে চলেছে অজুত-সহস্র জলরাশি। পাহাড়ি ঝরনার মতে সে নয়। পুরো কোল জুড়ে আপন বেগে পাগলপারা।  কাছে গেলে ভুল ভাঙে। উপত্যকার মরীচিকা! হয়তো তাই। তবু, স্রোতই তো। প্রাণের স্রোত।

পাহাড়ের কোলে এ এক গ্রাম। প্রকৃতি তার রূপরসগন্ধ যেন উজাড় করে দিয়েছে। তার ওপর খোদকারিতে আরও অপরূপা। শ’য়ে শ’য়ে হাজারে হাজারে বাড়ি। একঘর পড়শি বসত করে। তবে, গাঁয়ের পাশের আরশিনগর নয়। চীনের শেংদু থেকে ৩৭০ মাইল। ১২,৫০০ ফুট উঁচুতে শান্ত, নিরিবিলি গ্রাম। বিশ্বের সবচেয়ে বড় বুদ্ধ-বসতি। হ্যাঁ, ৪০ হাজার বুদ্ধ সন্ন্যাসী-সন্ন্যাসিনী আছেন এখানে।

নানা ভাষাভাষির হলেও যাঁদের ঘর এক, পরিধান এক, ধর্ম এক, একসঙ্গে শিক্ষা। একসঙ্গে প্রার্থনা। দেশকালগণ্ডির সীমাবদ্ধতা নেই। কেউ এসেছেন পাশের তিব্বত থেকে, কেউ চীনেরই, কারও আগমন মালয়েশিয়া থেকে কারও বা আসা তাইওয়ান, হংকং নয়তো সিঙ্গাপুর। উদ্দেশ্য একটাই, তিব্বতীয় বৌদ্ধধর্মের পাঠ। সেই পাঠের জন্য এখানে গড়ে উঠেছে একটা প্রতিষ্ঠান, যার নাম লারুং গর বুদ্ধ অ্যাকাডেমি। এই অ্যাকাডেমিকে কেন্দ্র করেই চারপাশে বুদ্ধ-বসতি।