জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে: প্রধানমন্ত্রী

ShekhHasina-1427285280নিজস্ব প্রতিবেদক,হটনিউজ২৪বিডি.কম:  দেশবিরোধী যে কোন অপতৎপরতা ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবিলা করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে দেওয়া এক বাণীতে তিনি এই আহবান জানান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে, রায় দেওয়া হচ্ছে এবং রায় কার্যকরও শুরু হয়ছে। ঠিক সে সময়ে মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধের বিচার, পবিত্র সংবিধান, গণতন্ত্র ও সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডকে বানচাল করতে স্বাধীনতাবিরোধী সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী এবং গণতন্ত্রবিরোধী শক্তির ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত জোট একাত্তরের স্টাইলে চোরাগোপ্তা হামলা চালাচ্ছে। আগুনে পুড়িয়ে মানুষ হত্যা করছে।’ তাই এই মহান দিনে তিনি সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।

একাত্তরের ২৫ মার্চ কালরাতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী অতর্কিতে নিরীহ ও নিরস্ত্র বাঙালির ওপর যে হত্যাযজ্ঞ শুরু করে তা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ২৬ মার্চের প্রথম প্রহরে আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। এ ঘোষণা টেলিগ্রাম, টেলিপ্রিন্টার ও তৎকালীন ইপিআরের ওয়ারলেসের মাধ্যমে সমগ্র বাংলাদেশে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমেও এই ঘোষণা প্রচারিত হয়।’

৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতার ডাক দেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু সেখানে ঘোষণা দিয়েছিলেন, এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। এরই মাধ্যমে তিনি বাঙালি জাতিকে শত্রুর মোকাবিলা করার নির্দেশ দেন।’

স্বাধীনতার সুফল বাংলার প্রতিটি ঘরে পৌঁছে দিতে তাঁর সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি মধ্য আয়ের দেশে উন্নীত এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করা হবে। সরকার এ লক্ষ্য অর্জনে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।’ সূত্র: বাসস।