ভোলা

কোকোর মাহফিলে অংশগ্রহণ করায় ভোলার চরফাশনে ছাত্রদল সভাপতিকে কুপিয়ে হত্যা

ভোলাএম. শরীফ হোসাইন, ভোলা প্রতিনিধি : সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর মিলাদ মাহফিলে অংশ গ্রহণ করায় ভোলার চরফ্যাশনে ছাত্রদল সভাপতিকে কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। ঘটনাটি ঘটেছে চরফ্যাশন উপজেলার নুরাবাদ ইউনিয়নে।
সূত্রে জানা যায়, ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার নুরাবাদ ইউনিয়নের বিএনপি সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ ফিরোজের বাড়ীর দরজার মসজিদে কোকোর মৃত্যু উপলক্ষ্যে ২৫ জানুয়ারী এক মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে এলাকাবাসীসহ ইউনিয়ন ছাত্রদল, যুবদলসহ দলীয় রাজনৈতিক কর্মীরা অংশ গ্রহণ করে। মিলাদ মাহফিলে ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ছাত্রদল সভাপতি মোঃ হারুনও অংশ গ্রহণ করে। মিলাদে অংশ গ্রহণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ২৬ জানুয়ারী সন্ধ্যায় নুরাবাদ মাদ্াসার চৌরাস্তায় স্থানীয় ছাত্রলীগ, যুবলীগের কর্মী হারুনের উপর হামলা চালায়। হামলাকারী মোঃ কামাল উদ্দিন, নুরন্নবী, বশির মাজি, হানিফ, বাসার, শাহীন, সোহাগ, ফরিদ, হারিছ মাঝিছ, মাস্টার আমীর হোসেন, নুর হোসেনসহ ৩০/৪০ জনের একটি দল হারুনের উপর হামলা চালিয়ে বলে শালা কোকো মারা গেছে মালয়েশিয়া এখানে কিসের মাহফিল করছিস। এই বলে তারা হারুনকে এলোপাথারী মারপিট ও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে বলে হারুনের ভাই মাহমুদুল হাসান জানান।
তিনি অভিযোগ করে বলেন, মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে প্রথমে চরফ্যাশন হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান থেকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করান। সেখানে তিনি মঙ্গলবার সকাল সাড়ে দশটায় মৃত্যুবরণ করেন।
হারুনের আরেক ভাই মাহাবুব আলম জানান, শুধূ মিলাদে অংশগ্রহণ করায় আমার ভাইকে দুনিয়া থেকে চলে যেতে হলো রাজনীতি করার কারনে। তিনি হত্যাকারীদের উপযুক্ত বিচার চান।