প্রধান খবর বিনোদন

কমলাপুরের বাসায় চাষী নজরুলের মরদেহ : দাফন সোমবার

80509_444নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর কমলাপুর জসীম উদ্দিন রোডের বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক চাষী নজরুল ইসলামের মরদেহ। রবিবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে ল্যাবএইড হাসপাতাল থেকে তার লাশ বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, চাষী নজরুল ইসলামের মরদেহ রবিবার দুপুরে ১টা পর্যন্ত তার বাসভবনে রাখার পর ফের ল্যাবএইড হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হবে।

সোমবার সকালে তার কর্মস্থল এফডিসিতে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা তার মরদেহে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। এরপর তার লাশ নিয়ে যাওয়া হবে জাতীয় প্রেসক্লাবে সেখানে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এ ছাড়া বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম মসজিদেও অনুষ্ঠিত হবে নামাজে জানাজা।

এরপর একইদিন অর্থাৎ সোমবার বিকালে তাল মরদেহ গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে বাদ আসর নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থান মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার সমশপুর গ্রামে মায়ের কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে।

রবিবার ভোর পৌনে ৬টার দিকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক চাষী নজরুল ইসলাম। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর।

দীর্ঘদিন ধরেই ফুসফুস ক্যান্সারে ভুগছিলেন গুণী এ নির্মাতা। বিদেশেও চিকিৎসা করানো হয় তাকে। গত বছরের ৭ ডিসেম্বর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বেশ কয়েকদিন চিকিৎসার পর কিছুটা উন্নতি হলে ১৭ ডিসেম্বর তাকে বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। চলতি বছরের ৭ জানুয়ারি শারীরিক অবস্থার আবারো অবনতি হলে তাকে ল্যাব এইড হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়। তিনি ২০০৪ সালে একুশে পদক পেয়েছিলেন।