আন্তর্জাতিক

ডিপ ফ্রিজে এগার মাস হিন্দু ধর্মগুরুর লাশ!

94528_1হটনিউজ২৪বিডি.কম,ডেস্ক : ভারতে এক হিন্দু ধর্মগুরুর মৃতদেহ ১১ মাস ধরে ডিপ ফ্রিজে রাখা হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর সহায়তায় যাতে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করা না যায় সেজন্য সশস্ত্র ভক্তরা তার আশ্রম পাহারা দিচ্ছেন।

ভক্তদের দাবি, ধর্মগুরু মারা যায়নি, গভীর ধ্যান বা ‘সমাধি’তে রয়েছেন তিনি।

ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যের ওই ধর্মগুরুর নাম আশুতোষ মহারাজা।
গত ২৯ জানুয়ারি তাকে ‘ক্লিনিক্যালি ডেড’ ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এরপর তার লাশ এনে আশ্রমের ডিপ ফ্রিজে রাখা হয়। তারপর থেকেই তার লাশ যাতে বাইরে নিয়ে পোড়ানো না হয় সেজন্য কড়া প্রহরা বসানো হয়।

বিষয়টি হাইকোর্ট পর্যন্ত গড়ালে আদালত ১৫ দিনের মধ্যে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করার নির্দেশ দেয়। কিন্তু ভক্তরা সেই নির্দেশ পালন করতে অস্বীকৃতি জানান।

আশ্রমের একজন মুখপাত্র আদালতের ওই নির্দেশের বিরুদ্ধে আপিল করার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেন, তাদের বিশ্বাস তাদের ধর্মগুরু গভীর ধ্যানে রয়েছেন।

সম্প্রতি ওই আশ্রমটিতে ভক্তদের আনাগোনা ব্যাপকহারে বেড়েছে। দৈনিক প্রায় ৩,০০০ ভক্ত আশ্রমটি পরিদর্শন করেন। এর মধ্যে রাতেই আসেন ৫০০-৭০০ লোক।

আশ্রমটির ভেতরে ৭-৮টি লাইসেন্স করা অস্ত্র রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আশুতোষ মহারাজার আশ্রমের নাম ‘দিব্য জ্যোতি জাগৃতি সংস্থা’। এই আশ্রমের রয়েছে শত শত কোটি রুপির সম্পদ।

উল্লেখ্য, গত মাসে পাঞ্জাবের প্রতিবেশী হরিয়ানা রাজ্যে রামপাল দাস নামে এক হিন্দু ধর্মগুরুকে রুদ্ধশ্বাস এক পুলিশি অভিযানে গ্রেপ্তার করা হয়। তার আশ্রম থেকে বিপুল অস্ত্র, গোলাবারুদ, শিশু ও নারীর লাশ, বিলাসবহুল গাড়িসহ বহু সামগ্রী উদ্ধার করা হয়।

বর্তমানে খুনের মামলায় কারাগারে রয়েছেন রামপাল দাস।

সূত্র: এনডিটিভি