অপরাধ খুলনা ঝিনাইদাহ শিক্ষাঙ্গন

হরিণাকুন্ডুতে পুলিশের পোশাক পরে জেএসসি পরীক্ষার্থী অপহরণ

 এস আই মল্লিক(ঝিনাইদহ): ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলার কাপাশহাটিয়া গ্রাম থেকে বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে হাসান আলী নামে (১৬) এক স্কুল ছাত্রকে অপহরণ করেছে দুর্বৃত্তরা। স্থানীয় ভালকী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র হাসান হরিণাকুন্ডু উপজেলার কাপাশহাটিয়া গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসি মুরাদ আলীর ছেলে। অপহৃত হাসানের মা আনজিরা খাতুন জানান, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে তিনজন দুর্বৃত্ত পুলিশের পোশাক পরে ঘরে ঢুকে তার জেএসসি পরীক্ষার্থী ছেলে হাসানকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। তিনি আরো জানান এ ঘটনার সঙ্গে তার প্রতিবেশি জাহাঙ্গীর হোসেন জড়িত এবং ধস্তাধস্তির সময় মুখোশ খুলে যাওয়ায় তাকে চিনতে পরেছেন বলে পুলিশকে জানান।  তবে গ্রামবাসির ধারণা জমিজমা সংক্রান্ত ঘটনার জের ধরে কিংবা পিতা বিদেশ থাকার কারণে টাকার জন্য কিশোর হাসানকে দুর্বৃত্তরা অপহরণ করতে পারে। বিষয়টি নিয়ে হরিণাকুন্ডু থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এরশাদুল কবীর জানান, জেএসসি পরীক্ষার্থী হাসানেক অপহরণের পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে অভিযান শুরু করে। তিনি আরো জানান, হাসানের মা আনজিরা খাতুন প্রতিবেশি জাহাঙ্গীরকে দোষারোপ করলেও ঘটনার সময় জাহাঙ্গীরকে নিজ ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। তাই হাসান অপহরণের বিষয়টি রহস্যজনক বলে মনে হচ্ছে। এ বিষয়ে হরিণাকুন্ডু থানায় শুক্রবার দুপুরে অপহৃত হাসানের মা আনজিরা খাতুন বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন বলে ওসি এরশাদুল কবীর জানান। এদিকে পুলিশের একটি সুত্র জানায় ইতিপুর্বে সামাজিক দ্বন্দের জের ধরে হরিণাকুন্ডু উপজেলার কাপাশহাটিয়া গ্রামে তিন শিশু খুনের শিকার হয়েছে। নিহত শিশুরা হলো কাপাশহাটিয়া গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে আসাদ, সিদ্দিক হোসেনের ছেলে হযরত আলী ও জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে সোহাগ খুন হয়। ২০১৪ সালের বিভিন্ন সময় এসব শিশুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।