জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর

চলতি অধিবেশনে সংকট কাটছে না

perliament-sm20131005180639 আছাদুজ্জামান, হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা:  নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে যে জটিলতার সৃষ্টি হয়েছে তা সংসদের চলতি অবিবেশনে অবসান হচ্ছে না। প্রধান বিরোধীদল বিএনপির দাবি অনুযায়ী, নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিল সরকারের পক্ষ থেকে সংসদে উত্থাপন করা হচ্ছে না। যে কারণে ঝুলেই থাকছে নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা। সংকট সমাধানের সম্ভাবনা ক্রমেই ক্ষীণ হয়ে আসছে। এদিকে নিজের দাবির ব্যাপারে অনড় থাকলেও সংসদ অধিবেশনে যোগ না দিয়ে বিভিন্ন বিভাগে সমাবেশ করে নিজের দাবির পক্ষে জনসমর্থন যোগাতে ব্যস্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও কম যাচ্ছেন না। বিভিন্ন জায়গায় উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন কেন্দ্র করে আগামী নির্বাচনের জন্য ভোট চাইছেন। বরাবরের মতোই বলে যাচ্ছেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশে যেভাবে নির্বাচন হয়, সেভাবেই আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে। সরকার ও বিরোধীদলের পক্ষ থেকে সংসদকে সব আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে আখ্যায়িত করলেও সংসদ অধিবেশনে মনোযোগ নেই কোনো দলেরই। দু’দলই সংসদের বাইরে নিজেদের পক্ষে জনসমর্থন নিতে ব্যস্ত। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, আদালতে মীমাংসিত বিষয়ে আর কোনো আলোচনা নয়। আবার বলা হচ্ছে, বিএনপি চাইলে সংসদে এসে তাদের দাবি তুলে ধরতে পারেন। সংসদ সচিবালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ঈদের আগে আর মাত্র তিন দিন চলবে সংসদের এ অধিবেশন। ৮ অক্টোবরের পর ১১ দিনের বিরতিতে যাচ্ছে সংসদ। আগামী ৮ অক্টোবরের পর সংসদের বৈঠক ২০ অক্টোবর পর্যন্ত মুলতবি ঘোষণা করা হবে। এরপর ঈদ ও পূজার ছুটি শেষে ২০ অক্টোবর পুনরায় বসবে চলতি অধিবেশন, শেষ হবে ২৪ অক্টোবর। এ হিসেবে আর মাত্র সাতদিন সময় আছে নির্বাচনকালীন সরকার ব্যবস্থা নিয়ে সৃষ্ট জটিলতা অবসানের। কিন্তু দুই জোটের কারো মাথা ব্যাথা নেই সংকট সমাধানের। অন্যদিকে বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, সংকট সৃষ্টি করেছে সরকার, সমাধান করতে হবে তাদেরই। সরকারকেই সংসদে বিল আনতে হবে। আর বিএনপির পক্ষে দলের সিনিয়র নেতারা বলছেন, সরকার যদি সংসদের চলতি অধিবেশনে নির্দলীয় সরকারের বিল আনে তাহলে তাতে সমর্থন দিতে বিএনপি অধিবেশনে যোগ দেবে। অন্যথায় রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমে দাবি আদায় করা হবে। দুই দলের পাল্টাপাল্টি এমন অবস্থানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়ে আসছে নবম জাতীয় সংসদের চলতি অধিবেশন। এটি মহাজোট সরকারের শেষ অধিবেশনও। চলতি অধিবেশনের শুরুতে স্পিকারের স্বাগত ভাষণ অনুযায়ী আগামী ২৪ অক্টোবর শেষ হচ্ছে এ অধিবেশন। এরইমধ্যে চলতি অধিবেশনের ৮ কার্য দিবস শেষ হয়েছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে সংসদে সংকটের সমাধান না হলে রাজপথে কঠিন পরিস্থিতির শিকার হবে দেশের মানুষকে। এ পরিস্থিতিতে দেশের মানুষ আতঙ্কিত। চায়ের দোকান থেকে শুরু করে সবখানেই এখন আলোচনা কি হচ্ছে, কি হবে ২৪ অক্টোবরের পর। এরইমধ্যে বিরোধীদলের বিভিন্ন নেতাকর্মী বলে বেড়াচ্ছেন ২৪ অক্টোবরের পর দেশ চলবে খালেদার কথা মতো। এ অবস্থায় কঠিন পরিস্থিতি অপেক্ষা করছে দেশবাসীর জন্য।