বিনোদন হটনিউজ স্পেশাল

আমাকে ও মেহজাবিনকে দিয়ে বাণিজ্য হচ্ছে : আফরান নিশো

হটনিউজ ডেস্ক:

ছোট পর্দা দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন জনপ্রিয় জুটি আফরান নিশো ও মেহজাবিন চৌধুরী। ক্যারিয়ারে অনেক দর্শকপ্রিয় নাটক-টেলিফিল্ম উপহার দিয়েছেন তারা। এ জুটিকে নিয়ে উচ্ছ্বাসের শেষ নেই তার ভক্ত-অনুরাগীদের।

শোবিজে গুঞ্জন আছে- নিশো নাকি সিন্ডিকেট করে মেহজাবিনকে নিয়ে কাজ বেশি করেন। এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে একটি গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে নিশো বলেন, ‘না, এটি সত্য নয়। আমি কাউকে বেছে নিয়ে কাজ করি না। গল্পের চাহিদা থেকে আমার কাছে যখন কোনো কাজ আসে, তখন প্রযোজক–পরিচালক দেখেন শিল্পীর জনপ্রিয়তা, অভিনয়ের দক্ষতা, যে দুজনকে নিয়ে কাজ হবে, তাদের মধ্যে বোঝাপড়া, তাদের প্রতি দর্শকের চাহিদা কেমন। এসব দেখেই নাটকের পুরো টিম শিল্পী নির্ধারণ করে। কারণ, প্রযোজক কাজ করেন বাণিজ্য করার জন্য। বাণিজ্য যাদের দিয়ে হবে, তাদের নিয়েই কাজ করবেন। সেটা মেহজাবিন, তানজিন তিশা যে কেউ হতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রযোজক ও পরিচালক ভাবেন, আমাকে আর মেহজাবিনকে দিয়ে বাণিজ্য হচ্ছে। তা ছাড়া দীর্ঘদিন ধরে আমাদের দুজনের একসঙ্গে কাজ পছন্দও করছেন দর্শক। সত্যি কথা কী, কার সঙ্গে কার কাজ হবে, না হবে, সেটা এখানকার পরিবেশই ঠিক করে দেয়।’

বর্তমানে স্টেজ শোসহ নানান ধরনের ইভেন্টে অংশ নিচ্ছেন আফরান নিশো। এ প্রসঙ্গে তিনি সেই সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘সামগ্রিকভাবে আমি নাটকের মানুষ। এর বাইরে আমি আগে কিছুই করতাম না। শুধুই নাটকের কাজ আমার কাছে এখন একধরনের চাপ মনে হয়। দেশজুড়ে আমার হাজার হাজার ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষী ছড়িয়ে–ছিটিয়ে আছে। তাদের প্রতি আমার দায়িত্বও আছে। কদিন আগে কুমিল্লায় একটি শোরুমের উদ্বোধনীতে গিয়েছিলাম। সেখানে ভক্তদের ভালোবাসায় আমি আপ্লুত হয়েছি। ইচ্ছা হয় দেশের ৬৪টি জেলাতেই সশরীর যেতে। শুটিংয়ে গেলে ভক্তদের সঙ্গে কথা বলার সময় হয় না। অন্য কোনো কাজে গেলে ভক্ত-শুভাকাঙ্ক্ষীদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলার সুযোগ পাওয়া যায়। এটি কিন্তু আবেগেরও একটা জায়গা। এটি শিল্পী ও ভক্তের মেলবন্ধন তৈরি করে। এ কারণে এখন এ ধরনের কাজ করছি। ভক্তদের কাছাকাছি যাচ্ছি।’

ছোট পর্দার অনেকেরই বড় পর্দায় অভিষেক ঘটেছে। প্রায় দুই বছর ধরে সিনেমার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানালেও আর কোনো অগ্রগতি দেখা যায়নি নিশোর। তিনি জানিয়েছেন, ‘কোভিডের কারণে সব পরিকল্পনা এলোমেলো হয়ে গেছে। যেসব কাজ নিয়ে আলাপ-আলোচনা চলছিল, পিছিয়ে গেছে। এক-দুইটা কাজ ব্যাটে-বলে মেলেনি, ছেড়ে দিয়েছি। তবে ওটিটির জন্য ওয়েব ফিল্ম করতে যাচ্ছি। এ মাসেই শুটিং শুরু হবে। পরে বিস্তারিত বলতে পারব। ফিল্ম তো ফিল্মই। হোক সেটা বড় পর্দায় বা ছোট পর্দায়। তা ছাড়া ওটিটির জন্য এসব ফিল্ম প্রেক্ষাগৃহে মুক্তির আদলেই তৈরি হচ্ছে।’