জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর

ফরিদপুরে ৩ রোগীর করোনা জয়, হাসিমুখে হাসপাতাল ত্যাগ

ফরিদপুর প্রতিনিধি:

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা আইসোলশন ওয়ার্ডে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ভর্তি থাকা প্রথম ৩ রোগি করোনা কে জয় করে ঘরে ফিরেছেন। বৃহস্পতিবার (৩০এপ্রিল) সকাল ১১টায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি থাকা এই তিন রোগিকে ছাড়পত্র ও ফুল দিয়ে বিদায় জানান হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সরা।

করোনা জয়ীরা হলেন, নগরকান্দা উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের আব্দুল খলিল ব্যাপারী (৪৮) ও তার স্ত্রী মোসাঃ জেসমিন আক্তার বুলু (৩২) । অপরজন হলেন বোয়ালমারী উপজেলার গুনবাহা ইউনিয়নের চন্দনী গ্রামের মো. শাহাবুদ্দিন(৪৭)।

এ সময় ভালো হয়ে যাওয়া নগরকান্দা উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের আব্দুল খলিল ব্যাপারী বলেন, করোনায় আক্রান্ত হওয়ারর পর থেকে অনেক ভয়ে ছিলাম। তাছাড়া আমার স্ত্রী এই রোগে যখন আক্রান্ত হলো তখন আমার ভয় আরো বেড়ে গেল কিন্তু হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর থেকে নার্স ও চিকিৎসকদের ভালো সেবা পেয়ে আমরা অনেকটা আশার আলো খুজে পেলাম।

তিনি জানান, দেশের অন্যসব হাসপাতালে নার্স ও চিকিৎসকদের নিয়ে নানা কথা শোনা গেলেও এখানকার ডাক্তার ও নার্সরা অত্যন্ত ভালো। এ সময় রোগিরা তাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞের কথা জানান।

এ ব্যাপারে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ মাহফুজুর রহমান বুলু জানান, দুদফায় তাদের করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ রেজাল্ট আসার পরে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় তাদেও তিনজনকে ছাড়পত্র দেয়া হয়।

এরপর তারা বাড়ি ফিরে যান। তিনি বলেন মোসাঃ জেসমিন আক্তার বুলু ও আব্দুল খলিল ব্যাপারী ভর্তি হয়েছিলেন গত ১৮ এপ্রিল ও অপরজন মো. শাহাবুদ্দিন ভর্তি হয়েছিলেন ১৩ এপ্রিল।

বিদায়ের মূহুর্তে নার্স ও চিকিৎসকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ডাঃ মাহফুজুর রহমান বুলু, আরএমও ডাঃ আসাদুল সুমন, ডাঃ কামরুজ্জামান, সেবিকা আফসানা আক্তার, কাকলি খাতুন, মর্জিনা খাতুন, লাভলী আক্তার, রেহেনা ও ফারজানা।

করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর ফমেক হাসপাতাল থেকে হয়ে ভালো হওয়ার এমন খবরে জনসাধারনের মাঝে করোনা ভীতি অনেকটাই দূর হবে বলে মনে করছেন বিশিষ্টজনেরা।

এদিকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ সাইফুর রহমান জানান, বর্তমানে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা আইসোলশন ওয়ার্ডে দুই জন করোনা রোগি ভর্তি রয়েছেন। আর করোনা উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ৫জন রোগী।