আন্তর্জাতিক

করোনা প্রতিরোধে মালয়েশিয়ায় জরুরি অবস্থা জারি

হটনিউজ ডেস্ক:

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মালয়েশিয়ায় দুই সপ্তাহের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। দেশটিতে হঠাৎ করে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় মঙ্গলবার এই ব্যবস্থা নিল সরকার। খবর এবিসি নিউজের।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী মুহিদ্দিন ইয়াসিন দেশটির সব শিক্ষা, ব্যবসা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান এবং সরকারি দফতর বুধবার থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছেন। সেই সঙ্গে সব ধরনের জনসমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সুপারমার্কেট, ব্যাংক, গ্যাস স্টেশন ও ওষুধের দোকান ছাড়া অন্য সব দোকান বন্ধ থাকবে।
এছাড়া, মালয়েশিয়ানদের বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বিদেশি পর্যটকরদেরও দেশটিতে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। সেই সঙ্গে বিদেশ থেকে আসা সব মালয়েশিয়ান নাগরিককে ১৪ দিনের জন্য বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

মালয়েশিয়ায় মাত্র দু’দিনে নতুন করে ৩২৮ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ৫৬৬, যা দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় সর্বাধিক। সম্প্রতি রাজধানী কুয়ালালামপুরের এক মসজিদে ধর্মীয় অনুষ্ঠানে ১৬ হাজার মুসলমান সমবেত হয়েছিলেন। সেখান থেকে নতুন শনাক্ত রোগীদের মধ্যে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

করোনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে বলেও ঘোষণা দিয়েছেন ইয়াসিন। এর মধ্যে রয়েছে বিনা বেতনে ছুটি কাটানো ৩৩ হাজার কর্মীর জন্য নগদ অর্থ, ছয় মাসের জন্য বিদ্যুৎবিলে ছাড়, নিম্নআয়ের পরিবারগুলোকে অর্থ সহায়তা ইত্যাদি। এছাড়া, অর্থনীতির চাকা সচল রাখার জন্য চার দশমিক সাত বিলিয়ন মার্কিন ডলার সমপরিমাণ অর্থ বাজারে ছাড়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

জরুরি অবস্থা জারি থাকলেও বাজারে পর্যাপ্ত খাদ্য, ওষুধ, মাস্কসহ অন্য স্বাস্থ্যসেবা সামগ্রী মজুদ থাকবে বলে জনগণকে আতঙ্কিত হতে না করেছেন ইয়াসিন।