আন্তর্জাতিক জাতীয়

‘ধর্ষক বাবা রাম-রহিমের আশির্বাদ নিয়ে বিশ্ব মাতাচ্ছেন বিরাট

ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় সাত বছরের জন্য জেলে যেতে হল ধর্মগুরু রাম রহিম সিংকে।

শুক্রবার হরিয়ানার পাঁচকুলায় সিবিআই-এর বিশেষ আদালতে বাবা রাম রহিমকে দোষী সাবস্ত করেন বিচারক জগদীপ সিং।
অথচ এই ‘ধর্ষক গুরু’র কাছে ট্রেনিং নিয়ে না কি ক্রিকেট বিশ্ব মাতাচ্ছেন বিরাট কোহলি। বছর খানেক আগে একটি অনুষ্ঠানে এমটাই দাবী করেছিল বাবা রাম রহিম।

জাতীয় দলে তখনও অভিষেক হয়নি। দিল্লির হয়ে রঞ্জি ট্রফি খেলার সময় সতীর্থ আশিস নেহেরা ও বিজয় দাহিয়ার সঙ্গে ডেরা সাচা সৌদা প্রধানের আশির্বাদ নিতে গিয়েছিলেন কোহলি। বাবা রাম রহিমের সঙ্গে বর্তমানে ভারত অধিনায়কের ছবিও দেখা গেছে। ছবিতে পরিষ্কার দেখা যাচ্ছে, তার আশির্বাদ নিচ্ছেন বিরাট।
বিরাট সম্পর্কে এক সাক্ষাৎকারে রাম রহিম বলেন, বিরাট যখন বড় রান পাচ্ছিল না, তখন একবার আমার কাছে আসে। আমি ওকে নিয়মিত প্র্যাকটিস ও অবিরাম শেখার পরামর্শ দিই। ভারতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার পর বিরাট আমাকে ধন্যবাদ জানিয়েছিল। ’ বাবা রাম রহিম আগেও নানা অপরাধমূলক কাজে যুক্ত ছিল। তার বিরুদ্ধে হত্যা এবং ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে অনেকবার।

শুধু বিরাট কোহলি বা আশিস নেহেরা নয়, দেশের বক্সিং তারকা বিজেন্দ্রে সিং-কেও বাবা রাম রহিমের সঙ্গে একই মঞ্চে দেখা গেছে। গত বছর এক সাক্ষাৎকারে বাবা রাম রহিম দাবি করেছিল, জীবনে আমি প্রচুর সাফল্য পেয়েছি। জাতীয় স্তরে আমি ৩২ রকমের খেলায় অংশ নিয়েছি। পরে কোচিংও করিয়েছি। প্রচুর তরুণ আমার কাছে আসত। যেমন বক্সার বিজেন্দ্রর সিং, যে দেশকে অনেক পদক দিয়েছে। বিজেন্দ্রর ও কোহলি আমার কাছে শিখতে আসত। এখন কোহলি বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার।

সূত্র : কলকাতা২৪