আন্তর্জাতিক প্রধান খবর

ইয়েমেনে জনসম্মুখে ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ড

 

 

 

 

পাঁচ বছরের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে ইয়েমেনের রাজধানী সানায় হুতি বিদ্রোহীরা জনসম্মুখে অভিযুক্তের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে। সোমবার রাজধানী সানার তাহরির স্কয়ারে ওই ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

২০১৫ সালের ৯ নভেম্বর সাফা মুহাম্মদ তাহির আল মুতারিক (৫) নামের এক শিশুকন্যাকে অপহরণ ও ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে ২২ বছর বয়সী হুসেইন আল-সাকেত নামের ওই ধর্ষককে জনতার সামনে ঝুলিয়ে গুলি করে  মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় । সানার তাহরির স্কয়ারে সাকেতের হাত-পা বেঁধে ক্রেনের সঙ্গে ঝুলিয়ে জনতার সামনে ফায়ারিং স্কয়ারের এক পুলিশ তার শরীরে পাঁচটি গুলি চালিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করেন।এ সময় রাজেহ ইজ্জেদিন নামে দেশটির একজন বিচারক সেখানে উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দৈনিক আল-আরাবিয়া।

আসামী সাকেতের বিরুদ্ধে সাফা মুহাম্মদ তাহির আল-মুতারিকে অপহরণ, ধর্ষণ এবং হত্যার পর মাটিতে পুঁতে রাখার অভিযোগ ছিল। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পর তাকে জনসম্মুখে ঝুলিয়ে গুলি করে  মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের রায় দেয় হুতি বিদ্রোহীরা।  এ রায়ে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট ও রাজনৈতিক পরিষদের অনুমোদন ছিল বলেও জানিয়েছে পত্রিকাটি ।

গত  ৩১ জুলাই তিন বছরের আরেক শিশুকন্যাকে  ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে অভিযুক্ত আরেক ধর্ষককে একই স্থানে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছিল। এই নিয়ে দেশটিতে দুই সপ্তাহের মধ্যে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে অভিযুক্ত  দুইজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলো।