কক্সবাজার চট্টগ্রাম জাতীয় প্রধান খবর সারাদেশ

‘মোরা’র আঘাত শুরু: লন্ডভন্ড হচ্ছে উপকূলীয় এলাকা

কক্সবাজার প্রতিনিধি : কক্সবাজারের উপকূলে আঘাত হানতে শুরু করেছে ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’। আজ রাত সাড়ে তিনটার পর থেকে কক্সবাজারের সেন্টমার্টিন ও টেকনাফে মোরা প্রথম আঘাত হানতে শুরু করেছে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’র আঘাতে লন্ডভন্ড হতে শুরু করেছে কক্সবাজারে উপকূলীয় এলাকা।

‘মোরা’র আঘাত শুরু হওয়ার সাথে সাথে বাড়ছে বাতাসের গতিবেগ। প্রচণ্ড বাতাসে লন্ডভন্ড হয়ে যাচ্ছে দেশের সর্ব দক্ষিণের সেন্টমার্টিন, শাহাপরীরদ্বীপসহ টেকনাফের অধিকাংশ এলাকা। ভেঙে যাচ্ছে অধিকাংশ কাঁচা-পাকা ঘরবাড়ি। ঘূর্ণিঝড়ের সঙ্গে দমকা বাতাসে উপড়ে যাচ্ছে গাছপালা, বিলিন হচ্ছে মাছের ঘের, নষ্ট হয়ে গেছে লবনের মাঠ ও পানের বরজ। তবে এখনো পর্যন্ত কোন প্রাণহানীর খবর পাওয়া যায়নি।

এই সময় প্রচণ্ড বেগে বাতাস শুরু হয়। বাতাসের গতি ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করেছে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ কক্সবাজারে দিকে অগ্রসর হচ্ছে। পূর্বঘোষণা অনুযায়ী ইতিমধ্যে সেন্টমার্টিন ও শাহাপরীর দ্বীপের লোকজন অনেকে আশ্রয় কেন্দ্রে চলে গেছে।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ আরও শক্তিশালী হয়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে। আজ মঙ্গলবার সকালে এটি উপকূলে আঘাত হানতে পারে বলে গতকাল সোমবার বিকাল সাড়ে ৩টায় আবহাওয়া অধিদফতরের এক বার্তায় বলা হয়েছে। এজন্য চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৭ নম্বর বিপদ সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অধিদফতর। আবহাওয়াবিদ এ কেএম রুহুল কুদ্দুস স্বাক্ষরিত এক বিশেষ বুলেটিনে গতকাল সোমবার বিকাল সাড়ে ৩টায় অধিদফতরটি এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বিশেষ বুলেটিনে বলা হয়,মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৫ নম্বর বিপদ সংকেত নামিয়ে তার পরিবর্তে ৮ নম্বর নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলার সমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলা হয়েছে।

এরপর আবহাওয়া অধিদপ্তরের সর্বশেষ বিশেষ বুলেটিন-১৩ তে এ তথ্য জানানো হয়, ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ আরও এগিয়েছে উপকূলের দিকে। সোমবার রাত ৯টায় এটি কক্সবাজার উপকূল থেকে ২৮০ কিলোমিটার দূরে বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছিল।

এর আগে সোমবার সন্ধ্যা ৬টার বিশেষ বুলেটিন-১২তে বলা হয়, মোরার প্রভাবে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত এবং মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে ৮ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

সেই সাথে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, ফেনী, চাঁদপুর এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত (পুনঃ) ১০ নম্বর মহা বিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

এছাড়াও উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেত (পুনঃ) ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

এতে বলা হয়, পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড়টি আরও উত্তর দিকে অগ্রসর হয়েছে। ঘূর্ণিঝড় ‘মোরা’ মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করতে পারে।