খুলনা জাতীয় নড়াইল প্রধান খবর যশোর শিক্ষাঙ্গন

নড়াইলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চালু হলো মিড ডে মিল

  উজ্জ্বল রায়,নড়াইল জেলা প্রতিনিধিঃ unnamed প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান এবং বিভাগীয় নির্দেশনা, দুপুরের খাবার চালু করতে হবে বিদ্যালয়ে। এরপরই খুঁজতে থাকি বিদ্যালয়। সব কর্মকর্তা মিলে স্থানীয় লোকজনকে উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টা চলে। শেষে সফল হই। নড়াইল জেলায় এই প্রথম প্রত্যন্ত অঞ্চলের একটি বিদ্যালয়ে চালু হলো দুপুরের খাবার (মিড ডে মিল)। কথাগুলো বলছিলেন নড়াইলের উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফর রহমান। তিনি বলেন, দুপুরে খাওয়ার মধ্য দিয়ে কালিনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দুপুরের খাবার চালু হলো। বিদ্যালয়টি নড়াইলের নলদী ইউনিয়নের কালিনগর গ্রামে অবস্থিত। নড়াইল সদর উপজেলা থেকে এ বিদ্যালয়ের দূরত্ব প্রায় ২৫ কিলোমিটার। আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের পাঠানো তথ্য,ছবির ভিত্তিতে জানা যায় এ কর্মসূচির উদ্বোধন উপলক্ষে গতকাল জমজমাট ছিল বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ। উপস্থিত হয়েছিলেন জেলা ও উপজেলার শীর্ষ কর্মকর্তারা। অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ছিল উৎসবমুখর। শিক্ষার্থীদের সঙ্গে প্রথম দিন মুরগি-খিচুড়িতে ভাগ বসিয়েছিলেন অভিভাবক ও কর্মকর্তারা। সে এক অন্য রকম পরিবেশ। বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, ২০১২ সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিদ্যালয়ে শিশু শ্রেণি থেকে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত রয়েছে। শিক্ষার্থী ৬৬ জন। আপাতত প্রতি সপ্তাহে দুই দিন খাওয়ানো হবে সব শিক্ষার্থীকে। পরে প্রতিদিন । সব খরচ স্থানীয় লোকজনের। বিদ্যালয়ের সভাপতি বিশ্বজিৎ রায় বলেন, ইতিমধ্যে বাড়ি বাড়ি থেকে পাঁচ মণ চাল ও দুই হাজার টাকা সংগ্রহ হয়েছে। স্থানীয় সবাই মিলে আমরা খাওয়াব। কেউ কেউ বলেছেন একেকজন একেক দিন খাওয়াবেন। এ নিয়ে উৎসবমুখর হয়ে পড়েছে গ্রামটি। গতকাল ওই বিদ্যালয়ে এ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন নড়াইল জেলা প্রশাসক মো. হেলাল মাহমুদ শরীফ। তিনি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তাঁর বক্তব্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে এই প্রত্যন্ত গ্রাম এলাকার লোকজন স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে এসেছেন, এটি পুরো জেলার জন্য দৃষ্টান্ত। এতে শিক্ষার্থী বাড়বে, ঝরে পড়ার হার কমবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নলদী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান মো. আবুল কালাম আজাদ। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জেছের আলী, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফর রহমান, সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মকসুদুল হক, এসময়,গণমাধ্যমকর্মী,বি এস এস, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি শরিফুল ইসলাম, নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সদস্য বৃন্দে, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শহীদুল ইসলাম প্রমুখ।