জাতীয় ঢাকা সারাদেশ

বিশ্বব্যাপী শান্তি প্রতিষ্ঠায় ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান – অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান

anisuzzaman_34765হটনিউজ ডেস্ক  :  বিশ্বব্যাপী শান্তি প্রতিষ্ঠায় যুদ্ধের বিপক্ষে এবং শান্তির পক্ষে দেশ-বিদেশে সর্বত্র মানুষের মধ্যে ব্যাপক ভিত্তিক ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এমেরিটাস অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান। আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস- ২০১৬ উপলক্ষে বাংলাদেশ শান্তি পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি আহ্বান জানান। বিশ্বব্যাপি শান্তি আন্দোলন কার্যকর করার ক্ষেত্রে শান্তি পরিষদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে বলেও বক্তৃতাকালে মত প্রকাশ করেন তিনি। আজ ২১ সেপ্টেম্বর বুধবার ছিলো আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস। বিশ্বের শান্তিকামী মানুষের দাবির প্রেক্ষিতে জাতিসংঘ এই দিনটিকে ১৯৮১ সালে আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস হিসেবে ঘোষণা করে এবং ১৯৮৩ সাল থেকে তা বিশ্বব্যাপি পালিত হয়ে আসছে। এদিকে নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের শান্তিকামি মানুষ আন্তর্জাতিক শান্তি দিবসটি পালন করে আসছে। এ বছরও অস্ত্র ও সন্ত্রাসমুক্ত বিশ্বের দাবি নিয়ে নানা আয়োজন চলছে। বাংলাদেশেও বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে দিবসটি পালিত হয়।
যুদ্ধের বিরুদ্ধে মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করার আহ্বান জানিয়ে অতি সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় ড. আনিসুজ্জামান বলেন, মহাযুদ্ধ সংগঠনের আজ ৭০ বছর পরও মানবসমাজ যুদ্ধবিগ্রহের আশংকা থেকে মুক্ত হতে পারছে না। তাই যুদ্ধের বিরুদ্ধে ও শান্তির পক্ষে আমাদের কাজ করতে হবে। এটা কোন রাজনৈতিক বা কোন একটি দেশের কথা নয়- এটা মানবিকতার কথা। যতক্ষণ না পর্যন্ত আমাদের মধ্যে ব্যাপকভিত্তিক ঐক্য গড়ে তুলতে না পারছি, ততক্ষণ পর্যন্ত শান্তি আন্দোলন কার্যকর হবে না।
বিশিষ্ট এ শিক্ষাবিদ বলেন, সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর অনেকে মনে করেছিলেন ঠান্ডা যুদ্ধ শেষ হলো। কিন্তু গত ২৫ বছরে আমরা দেখছি পৃথিবীতে যুদ্ধ, সংঘাত ও হানাহানি শেষ হয়ে যায়নি। মধ্যপ্রাচ্যে এখন ভয়াবহ যুদ্ধক্ষেত্রের পরিবেশ বিরাজ করছে। শরণার্থীদের মানবিক বিপর্যয় এখন মধ্যপ্রাচ্য থেকে শুরু করে ইউরোপ পর্যন্ত গিয়ে পৌঁছেছে। আমাদের ঘরের কাছে কাশ্মীর নিয়ে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি শুরু হয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী এখন বড় ধরণের যুদ্ধ না হলেও অনেক স্থানেই সংঘাত ও হানাহানির পরিবেশ বন্ধ করা যাচ্ছে না। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর সারা বিশ্বে যেভাবে যুদ্ধ বিরোধী আন্দোলন ও জনমত গড়ে উঠেছিল, ঠিত এখনও শান্তিময় পৃথিবীর জন্য সকলকে সোচ্চার থাকতে হবে।
আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ শান্তি পরিষদের সভাপতি ও বিশ্ব শান্তি পরিষদের সহ-সভাপতি রাজনীতিক মোজাফ্ফর হোসেন পল্টু। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে সাবেক রাষ্ট্রদূত ও আওয়ামী লীগ নেতা মমতাজ হোসেন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ একাংশের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান এমপি, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, জাসদ একাংশের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শওকত রায়হান, বাংলাদেশ শান্তি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ড. প্রকৌশলী এম এ কাসেম প্রমুখ বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ শান্তি পরিষদের নেতা মাহবুবুল ইসলাম।