চাঁদপুর প্রধান খবর

চাঁদপুরে তেলবাহী লরিতে বিস্ফোরণ, দগ্ধ ১৫

image-34674-1472699677

চাঁদপুর শহরে তেলবাহী একটি ট্যাংক লরি বিস্ফোরণে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ছয়জনের অবস্থা আশংকাজনক। তাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

গতকাল বুধবার রাত পৌনে ১টার দিকে স্থানীয় বঙ্গবন্ধু সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

দগ্ধদের মধ্যে তেল ব্যবসায়ী মিজানুর রহমান (৫০), বাদশা (৪৫), মাসুদ (২৮), রায়হান (২৩), নুর মোহাম্মদ (২১) ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মী মজুমদার খোকনকে (৪০) প্রথমে সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

দগ্ধদের অবস্থা সম্পর্কে চাঁদপুর সদর হাসপাতালের দায়িত্বরত ডা. বেলাল হোসাইন জানান, ছয়জনের মধ্যে চারজনের ৯০ এবং দু’জনের শরীরের প্রায় ৬০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, রাতে শহরের একটু বাইরে বঙ্গবন্ধু সড়কে একটি তেলের দোকানে ট্যাংক লরি থেকে তেল লোড করা হচ্ছিল। এ সময় লরিটিতে আগুন ধরে যায়। পরে সেটিতে বিস্ফোরণ হয়। এতে দোকানের মালিক, তার ছেলে এবং আশপাশের বাড়ির অন্তত ১৫ জন দগ্ধ হন। বিস্ফোরণে আশপাশের কয়েকটি বাড়িতেও আগুন ছড়িয়ে পড়ে। ওই সড়কের একটি তিন তলা ভবনও আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

এ সময় তিনতলার তেলের দোকানে থাকা মানুষজন ছাদে অবস্থান নেয়। খবর পেয়ে চাঁদপুর সদর, পুরানবাজার, ফরিদগঞ্জ, হাজীগঞ্জ মতলবের ফায়ার সার্ভিসের পাঁচটি ইউনিট ঘটনাস্থলে আসে। পরে মই দিয়ে তারা ভবনের ছাদ থেকে দগ্ধদের উদ্ধার করে। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে রাত তিনটার দিকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হন।

চাঁদপুরের জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সবুর মণ্ডল জানান, আশংকাজনক ছয়জনকে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতাল এবং ফায়ার সার্ভিসের এ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আছেন ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মীসহ দু’জন। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

তবে কি কারণে তেলবাহী ট্যাংক লরিতে বিস্ফোরণ ঘটেছে তা জানা যায়নি।

দমকল বাহিনীর কর্মকর্তা ফারুক আহমেদ জানিয়েছেন, রাতেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণের চেষ্টা চলছে।