অপরাধ জাতীয়

বাসায় ফিরেছেন জাবি থেকে ‘অপহৃত’ তরুণী

96326463e0583816334aff25ec4d1c4f-হটনিউজ২৪বিডি.কম : ‘অপহরণের’ ২৭ ঘণ্টা পর সুস্থ অবস্থায় বাসায় ফিরেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অপহৃত হওয়া সেই তরুণী। সোমবার বিকাল সোয়া ৩টার দিকে ওই তরুণী বিশ্ববিদ্যালয়ের জয় বাংলা ফটক থেকে তার ছোট ভাইকে ফোন করে। এরপর তার পরিবারের লোকজন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা গিয়ে তাকে বাসায় নিয়ে যান।

রবিবার দুপুরে ওই তরুণীকে বিশমাইলের কর্মচারী ক্লাবের সামনে থেকে জোর করে মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় তার একটি ছবি, কানের দুল ও স্যান্ডেল রাস্তায় পড়ে যায়। পরে এ নিয়ে সংবাদ প্রকাশ হলে রাতে পরিবারের সদস্যরা তার পরিচয় নিশ্চিত করেন। আশুলিয়া থানা পুলিশ বাদী হয়ে গতকালই একটি সাধারণ ডায়েরি করে।

তরুণীর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ৬ বছর আগে সাভারের ‘সংশপ্তক’ নামের একটি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি কোচিং সেন্টারে শিক্ষকতা করতেন ওই তরুণী। সেখানে রাকিব নামে আরেক শিক্ষকের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। রাকিব তাকে পছন্দ করতেন। রাকিব বর্তমানে একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত আছেন। চলতি মাসের ৩ তারিখে ওই তরুণীর বিয়ের কাবিন হয়। এতে রাকিব ক্ষিপ্ত হন। রবিবার তরুণীর সঙ্গে কথা বলার জন্য রাকিব তাকে জাবি ক্যাম্পাসের প্রান্তিক ফটকে ডাকেন। তারা কথা বলতে বলতে কর্মচারী ক্লাবের সামনে দিয়ে পশ্চিম দিকে যাচ্ছিলেন। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী তরুণীকে জোর করে একটি মাইক্রোবাসে তুলে রাকিব তার গ্রামের বাড়ি বগুড়ায় নিয়ে যায়। এতে রাকিবের পরিবারের লোকজন আপত্তি জানায়। পরে তরুণীকে রাকিব, তার মা, বাবা ও বোন মিলে পাবলিক বাসে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে জয় বাংলা ফটকে নামিয়ে দিয়ে যান।

আনোয়ারার ছোট ভাই সাইমুন ইসলাম বলেন, ‘তারা আমার আপুর কোনও ক্ষতি করেনি। আমাদের পরিবারের কারও বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ নেই।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা জেফরুল চৌধুরী সজল বলেন, ‘ফিরে আসার ঘটনাটি পুলিশকে জানানো হয়েছে। পুলিশ এসে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে।’

এ বিষয়ে জানতে আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মহসিনুল কাদেরকে একাধিকবার ফোন করেও পাওয়া যায়নি।