কুমিল্লা

কুমিল্লায় দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মীদের মাঝে সংঘর্ষ, আহত ৬

৫.নিজস্ব প্রতিবেদক,হটনিউজ২৪বিডি.কম ৯ মার্চ : কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার বড়শালঘর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী জহিরুল ইসলাম ঝারু এবং দলের বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনুছ মাস্টারের (আনারস) কর্মী-সমর্থকদের মাঝে সোমবার গভীর রাত থেকে মঙ্গলবার বেলা ১১ পর্যন্ত দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় কমপক্ষে ১০-১২টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, নির্বাচনী অফিস, বাড়ি-ঘর ও দোকানপাটে হামলা এবং ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে কমপক্ষে ৬জন আহত হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার রাতে বড়শালঘর ইউনিয়নের আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনুস মাস্টারের একটি মিছিলে হামলা চালায় আ’লীগ প্রার্থী জহিরুল ইসলামের কর্মীরা। পরে ওই ইউনিয়নের সংচাইল গ্রামে বিদ্রোহী প্রার্থী ইউনুছের একটি নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের পর পরিস্থিতি আরো অশান্ত হয়ে উঠে। এ সময় ইউনুস মাস্টারের লোকজন নৌকার সমর্থক জামান (২৬), আমির (৩২), শাহীন (২৭)সহ ৫/৬ জনকে মারধর করে আহত করে। এ ঘটনার জের ধরে সোমবার রাতে উভয় গ্রুপের মাঝে দফায় দফায় হামলা ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় প্রার্থী ও তাদের কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে রাতে বৈঠক করে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করে। কিন্তু মঙ্গলবার সকাল থেকেই উভয় গ্রুপ আবারো সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সকালে বিদ্রোহী ইউনুছ মাস্টারের সমর্থক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানুর বাড়িতে হামলা চালায় নৌকার সমর্থকরা। পরে বিদ্রোহী গ্রুপের লোকজন নৌকার প্রার্থী জহিরুল ইসলামের কর্মী-সমর্থকদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ভাংচুর চালায়। দুপুরে দেবিদ্বার থানার এসআই নুরুল ইসলাম জানান, দুই প্রার্থীর কর্মীরা মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে, এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রাখা হয়েছে।
হটনিউজ২৪বিডি.কম/এআর