বরিশাল স্বাস্থ্য

হায়াতুন্নেছার খবরে স্বাস্থ্য বিভাগের উর্ধতন টিম কলাপাড়ায়

download (7)নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া:কলাপাড়া হাসপাতালের এক্সটেনশন বিল্ডিংয়ের ফ্লোরে অবহেলায় পড়ে থাকা অশীতিপর বৃদ্ধা হায়াতুন্নেছাকে হাসপাতালের একটি বিশেষ শয্যায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। শনিবার দৈনিক জনকন্ঠে হায়াতুন্নেছার সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশ হলে কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে। শুরু হয় তোলপাড়। রবিবার সন্ধ্যায় বরিশাল থেকে স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক শামসুল আলম, সহকারী পরিচালক শেখ আব্দুল করিম, পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন ডাঃ গৌরমনি সিনহা কলাপাড়ায় এসে বৃদ্ধা হায়াতুন্নেছার উন্নত চিকিৎসা ও বিশেষ সেবাযতেœর ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছেন। হায়াতুন্নেছাও এখন অনেকটা সুস্থ হয়ে উঠেছেন। রবিবার সন্ধ্যায় হাসপাতালের এক স্টাফের সহায়তায় খাবার খেয়েছেন। হায়াতুন্নেছা রবিবার তার স্বামীর নাম আলী আহম্মেদ ও ছেলের নাম গিয়াস বলে জানান। তবে তার বাড়ি কোথায় তা সঠিকভাবে বলতে পারছেন না। পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশের পরে এখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সার্বক্ষণিক দেখাশোনার জন্য একজন স্টাফ সেখানে দিয়েছেন। দেয়া হয়েছে হায়াতুন্নেছাকে থাকার জন্য নরম একটি ম্যাট্রেস। মোটকথা হায়াতুন্নেছাকে দেখতে এখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মহাব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। অপরদিকে শনিবার রাতে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের শিক্ষক জাবেদ এবং তরুন ব্যবসায়ী শামীম খান ওই বৃদ্ধাকে পড়নের কাপড় কিনে দিয়েছেন। কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক ডাঃ আব্দুর রহিম জানান, গত ১৬ মার্চ দুপুরে আহত অবস্থায় বৃদ্ধা হায়াতুন্নেছাকে কুয়াকাটা নৌ-পুলিশ ফাড়ির কনেস্টবল আব্দুস সালাম কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। এরপর থেকে হাসপাতালের ফ্লোরে থেকেই চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল।