অপরাধ চট্টগ্রাম

মরিচ-হলুদে রং মেশানো দায়ে একজনের জেল-জরিমানা

download (5) নাজমুল হক শামীম, ফেনী প্রতিনিধি:ফেনীতে ভ্রাম্যমান আদালত মরিচ ও হলুদের গুড়ায় রং ও কাউন ধানের গুড়াসহ ভেজাল মিশিয়ে বিক্রির দায়ে এক কারখানার ব্যবস্থাপককে ১৩ দিনের জেল ও ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া বিএসটিআইয়ের ভুয়া লগো ব্যবহার করে খোলা ও ভেজাল তেল প্যাকেটে পুরে বাজারজাত করা ও অপরিছন্নতার অভিযোগে অপর চারটি প্রতিষ্ঠানকে দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

আদালত সুত্রে জানা যায়, রোববার বিকেলে ফেনী পৌরসভার তাকিয়া রোডের একটি মরিচ-হলুদ ভাঙ্গানোর কারখানায় পচা মরিচে রং ও হলুদে কাউন ধানের চালের গুড়া মিশিয়ে প্যাকেট ও বাজারজাত করার অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালায়। ভ্রাম্যমান আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে কারখানার মালিক পালিয়ে যায়। এসময় কারখানায় কাপড়ের বিশাক্ত রং, কাউন ধানের চালের গুড়াসহ ভেজাল দেখতে পেয়ে কারখানার ব্যবস্থাপক আবদুল কাদেরকে (৪০) পনের দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে কারাগারে প্রেরন করে। এছাড়া ওই কারখানাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা ও কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে।

আদালত একই রোডে বাজার থেকে খোলা ও ভেজাল তেল কিনে ‘রূপচান্দু’ নাম দিয়ে প্যাকেট করে বিএসটিআইয়ের নকল লগো ব্যবহার করে বাজারজাত করার অভিযোগে একজনের ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অপর দিকে অস্বাস্থ্যকর ও অপরিচ্ছনার অভিযোগে বেকারী ও মিষ্টিজাত খাদ্য প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ‘বনফুল এন্ড কোম্পানী’কে এক লাখ টাকা, ‘মধুমেলা’ ও ‘হীরা কনফেকশনারী’কে ৫০ হাজার টাকা করে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও জেলা প্রশাসকের কার্যায়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাশেদুর রহমান পাঁচটি প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে একজনের ১৫ দিনের কারাদন্ড এবং দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।