খুলনা প্রযুক্তি

যশোরে জমে উঠেছে ডিজিটাল উদ্ভাবনী প্রযুক্তি মেলা

রিপন হোসেন, যশোর প্রতিনিধি :যশোরে জমে উঠেছে ডিজিটিল প্রযুক্তি মেলা। সরকারী দপ্তর গুলো জনগণের সেবায় কি কি করছে তা তুলে ধরার পাশাপাশি আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সাথে নতুন প্রজন্মকে পরিচয় ঘটিয়ে দেওয়ায় এই মেলার মুল উদ্দেশ্য । তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের ব্যবস্থাপনায় যশোরের জেলা প্রশাসন এই মেলার আয়োজন করেছেন।

জেলা ই-সেবা কর্মকান্ডকে জনগণের সামনে তুলে ধরার জন্য প্রথম বারের মতো যশোরের জেলা প্রশাসন পৌর কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজন করেছেন ৩ দিন ব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা। গতকাল মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া এই মেলায় ৪৫টি স্টলে জেলা ই-সেবার বিভিন্ন কর্মকান্ড জনগণের সামনে তুলে ধরা হচ্ছে। নতুন প্রজন্মকে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তির সাথে পরিচয় ঘটানোর পাশাপাশি কিভাবে তা এই সেবা গ্রহণ করতে পারে সে ব্যাপারে তাদেরকে অবহিত করছে মেলা কর্তৃপক্ষ। বিনিয়োগ বোর্ডের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. এম. এ সামাদ এই মেলার উদ্বোধন করে বলেন, সেদিন খুব বেশী দূরে নয় যেদিন বাংলাদেশ দ্রুত মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত হবে।

মেলা প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সর্ব সাধারণের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়েছে। জেলা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সকাল থেকে মেলায় ভিড় করছে। তারা বিভিন্ন স্টল ঘুরে ঘুরে তথ্য সংগ্রহ করছ্ ে। পরিচিত হচ্ছে জ্ঞান বিজ্ঞানের সব আধুনিক কলা কৌশলের সাথে।

শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি শিক্ষক ও শিক্ষিত বেকাররাও এই মেলায় ভিড় জমাচ্ছে। তাদের লক্ষ্য হচ্ছে ডিজিটাল পদ্ধতি ব্যবহার করে কিভাবে জীবনের নানা সমস্যার দ্রুত সমাধান করা সম্ভব। জীনবকে কিভাবে আধুনিকায়ন করা যায়।

মেলার দর্শনার্থীরা বলছেন ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরীতে এই ধরণের উদ্যোগ খুবই ফলপ্রসুত। মেলা থেকে জ্ঞানার্জনের মাধ্যমে তা নিজস্ব কায়দায় প্রয়োগ করতে পারলে জীবন পাল্টে যাবে।

মেলায় জেলার বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্ঠান গুলো তাদের প্রদত্ব সেবা কার্যক্রম তুলে ধরার পাশাপাশি হাতে কলমে তা প্রয়োগের নানা পদ্ধতি মেলায় প্রদর্শন করছেন

মেলার দ্বিতীয় দিনে বুধবার সকালে ‘নাগরিক সেবায় ডিজিটাল যশোর’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করা হয়। এতে মূলপ্রবন্ধ উপাস্থপন করেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও এটুআই প্রকল্পের পরিচালক নজরুল ইসলাম খান। আলোচনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক নাজমুল আহসান কলিমুল্লাহ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্পের আইটি ম্যানেজার ফরহাদ জাহিদ শেখ। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন যশোরের জেলা প্রশাসক মোস্তাফিজুর রহমান।

বৃহস্পতিবার মেলা শেষ হবে। সমাপনী দিনে জেলার ই-সেবা কার্যক্রম সফল বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে অবদানের জন্য মেলায় কয়েকটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদান করা হবে। এর মধ্যে থাকছে, একজন সেরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, একজন সেরা ইউপি চেয়ারম্যান, একজন সেরা ইউপি সচিব, তিন জন সেরা ইউআইসি উদ্যোক্তা। এছাড়াও জেলা পর্যায়ের তিনটি ও উপজেলা পর্যায়ের তিনটি অফিসকে পুরস্কৃত করা হবে।