চট্টগ্রাম জাতীয় রাজনীতি

ফেনীতে বিএনপির শীর্ষস্থানীয় নেতাদের অবাঞ্চিত ঘোষনা করার হুমকি

নাজমুল হক শামীম, ফেনী প্রতিনিধি:

Feni Satrodol Press Conference Picture-01-06-2013ফেনী জেলা বিএনপি’র শীর্ষস্থানীয় নেতাকর্মীদের হস্তক্ষেপে জেলা ছাত্রদলের তিন মাসের আহবায়ক কমিটি তিন বছরেও পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে রুপান্তর না হওয়ায় বিএনপি’র স্বার্থন্বেষী নেতা ও ঢাকাস্থ ফেনীর সুবিধাবাদী এমপিদের ফেনীতে অবাঞ্চিত ঘোষনা করার হুশিয়ারি দিয়েছে ফেনী জেলা ছাত্রদলের একাংশ।

শনিবার সকালে ফেনীর একটি রেষ্টুরেন্টে ফেনী জেলা ছাত্রদল নিয়ে নানামুখী ষড়যন্ত্রের প্রতবাদে সংবাদ সম্মেলনে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আমান উদ্দিন কায়সার সাব্বির লিখিত বক্তব্য জানান, ২০১০ সালের ২৪ মে বাংলাদেশ জাতীয়তাবদী ছাত্রদল ফেনী জেলা শাখার নেতাকর্মীদের মতামতকে উপেক্ষা করে অযোগ্য, অছাত্র, মাদকাসক্ত ও বিভিন্ন অসামাজিক কর্মকান্ডে লিপ্ত ব্যক্তিদেরকে দিয়ে ৭ সদস্য বিশিষ্ট ফেনী জেলা ছাত্রদলের কামটি গঠন করা হয়। জেলা বিএনপির একটি অংশ কেন্দ্রীয় ছাত্রদলকে ব্যবহার করে অতিতে এই কমিটি করছে বলে তিনি দাবী করেন। তিনি আরো জানান, বর্তমানে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের নতুন কমিটিকেও তারা প্রভাবিত করছে। ফেনীর মাঠে যারা থাকেননা, শুধু এমপি হোস্টেল ও সংরক্ষিত এলাকায় ও বিভিন্ন পোষ্টারে যাদের ছবি (রেহানা আক্তার রানু এমপি) দেখা যায় তারাই তাদের ব্যক্তিগত সুবিধার্থে জেলা ছাত্রদলের কামটি নিয়ে হীনরাজনীতি করছেন বলে লিখিত অভিযোগ করেন ছাত্রদলের এঅংশটি।

আমান উদ্দিন কায়সার সাব্বির সংসদ সদস্য রেহানা আক্তার রানু নাম উল্লেখ না করে তাকে ইঙ্গিত করে বলেন, ব্যক্তি/ পকেট/ ভ্যানিটি ব্যাগ কমিটি করে জেলা ছাত্রদলের কমিটি পাশ করানো হলে ফেনীতে দূর্বার আন্দোলন তৈরী করা হবে। ছাত্রদলের কমিটি নিয়ে নানামুখী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে আগামীকাল রোববার বিক্ষভ মিছিল করবে ছাত্রদলের একাংশ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ফেনী জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক এএসএম কায়সার এলিন, সদর উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুর হোসেন সেলিম, সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের লিংকন, ফেনী পৌর ছাত্রদলের সভাপতি খুরশিদ আলম হারুন, সাধারণ সম্পাদক এম নুরুল ইসলাম, ফেনী কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ন আহবায়ক মোরশেদ আলম, ফরহাদ উদ্দিন চৌধুরী মিল্লাত প্রমুখ।

প্রসঙ্গত; ছাত্রদলের বর্তমান কমিটি ঘোষনার পর ফেনী জেলা ছাত্রদলের এই অংশটি জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নঈম উল্ল্যাহ চৌধুরী বরাতসহ ২-৩ জন নেতৃবৃন্দ অছাত্র ও মাদকাসক্ত দাবী করে তাদের কমিটি থেকে প্রত্যাহারের দাবীতে বিক্ষোভ ও আন্দোলন করে আসছেন।