চট্টগ্রাম রাঙ্গামাটি

রাঙামাটির সাজেকে ডায়রিয়ায় ৫জনের মৃত্যু

 imagesইয়াছিন রানা সোহেল,রাঙামাটি: রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেকের দুর্গম শিয়ালদাহ গ্রামে দুষিত পানি পান করে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত ৫জন মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এতে আরো ২৫ আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা যায়। নিহতরা হলেন, বদরাত্রী ত্রিপুরা (৪৫), লক্ষ্মী ত্রিপুরা (২৮) ভাতরাই ত্রিপুরা (৩৫), বিদ্যামোহন ত্রিপুরা (৮০) কুসুমতি ত্রিপুরা (৫৫)। গ্রামে কোনো আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থা না থাকায় ডায়রিয়ার প্রকোপ বেড়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন গ্রাম প্রধান জুইপ্পুথাং ত্রিপুরা।

গ্রাম প্রধান জুইপ্পুথাং ত্রিপুরা জানান, গত কয়েকদিন ধরে ডায়রিয়ায় গ্রামে প্রায় ৩০-৩৫জন আক্রান্ত হয়। বুধবার বিকাল থেকে একই পরিবারের স্বামী-স্ত্রীসহ এপর্যন্ত ৫জন নিহত হয়েছে। আরো বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। গ্রামে কোনো আধুনিক চিকিৎসা না থাকায় বনজ ওষুধের ওপর নির্ভর করে রোগ সামাল দেওয়ার চেষ্টা চলছে। গ্রামের সকলেই স্থানীয় ঝরণার পানির ওপর নির্ভরশীল। গত কয়েকদিন বৃষ্টিপাতের কারণে ময়লা পানি পান করে ডায়রিয়া ছড়াতে পারে। আমরা বাঘাইছড়ি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খবর দিয়েছি। তাদের একটি টিম গ্রামের দিকে রওনা দিয়েছে বলে আমরা শুনেছি।

এদিকে রাঙামাটির ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডা. সুশোভন দেওয়ান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, দুর্গম সাজেকের একজন হেডম্যানের (গ্রাম প্রধান) মাধ্যমে জানতে পেরেছি গত দুইদিনে ডায়রিয়ায় পাঁচজন মারা গেছে। ইতোমধ্যে আমাদের দুইটি মেডিকেল টিম সেখানে গেছে। সেনাবাহিনীর টিমও সেখানে গিয়েছেন বলেও জানান তিনি। সেখানে মোবাইল নেটওয়ার্ক না থাকায় কারো সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছে না।
এদিকে গ্রাম প্রধান জুইপ্পুথাং ত্রিপুরা জানান, এর আগে এই ধরনের সমস্যা দেখা দেয়নি। গত দুইদিনে পাঁচজন মারা যাওয়ার পর এখনো ওই এলাকায় এখনো ১০/১২জনের অবস্থা আশংকাজনক। ভয়ে ওই এলাকায় কেউ ঢুকছেন না আবার কেউ বেরও হচ্ছেন না। এলাকাবাসী আতঙ্কের মধ্যেই আছেন। এলাকায় দুইটি মেডিকেল টিম এসেছে। সেনাবাহিনীর মেডিকেল টিমও এসেছেন এখানে।