অর্থ ও বাণিজ্য কৃষি জাতীয় ঢাকা নেত্রকোণা হটনিউজ স্পেশাল

কুমড়া চাষে সাড়া জাগিয়েছে দুর্গাপুরের চাষীরা

 unnamedবিজন কৃষ্ণ রায় ,দুর্গাপুর নেএকোনা: জেলার দুর্গাপুর পৌরসভা ও দুর্গাপুর ইউনিয়নে দেশীয় কুমড়ার বাম্পার ফলনে কৃষকদের মুখে হাসি ফুটেছে, বদলে যাচ্ছে অর্থনৈতিক অবস্থা।সরজমিনে ঘুরে দেখা গেছে , বুরুঙ্গা,চারিয়া মাসকান্দা,মাকড়াইল এলাকায় ব্যাপক ভাবে ফলন হয়েছে দেশীয় কুমড়ার। কৃষক মোঃ আব্দুল লতিফ ১৩ একর,মোঃ আবুল কাশেম ১০ একর, আঃ জলিল ২.৫ একর,মোঃ ফজল মিয়া ১.৫একর, মোঃ আব্দুল মোতালেব ১ একর সহ ৪০ জন কৃষক এ চাষে ব্যস্থ দিন কাটাচ্ছে এর মধ্যে সর্বনিন্ম চাষী যে সেও ২কাটা জমি করেছে।কুমড়া চাষের আওতায়  মোট জমির পরিমান ৫৮ হেক্টর। আঃ জলিল, ফজল মিয়া, মোঃ জালাল মিয়া, মন্তাজ মিয়া ,শাবল মিয়া, আঃ হাসেম, আঃ ছালাম এর সাথে কথা বলে জানা গেছে প্রতি কাঠায় খরচ হয়েছে ১০ হাজার টাকা করে,বিক্রি হবে ৪০থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত। চারা করেছেন কার্ত্তিক মাসে ,রোপন পৌষ মাসে ফলন এবং বিক্রি হচ্ছে ফাল্গুনের প্রথম থেকে বিক্রি হবে বৈশাখের শেষ অবধি পর্যন্ত। উল্লেখ্য যে, উক্ত জমিতে বিগত বন্যায় আএাখালী নদীর  বাধঁ ভেঙ্গে ফসলের জমির উপর আনুমানিক দেড় ফুট  বালি পড়ায় ধান উৎপাদন বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর কৃষকরা কুমড়া চাষের উপর গুরত্ব দেবর্তমানে পাইকারী বিক্রয় হচ্ছে ১শত কুমড়া ১২০০/= টাকা,অর্থাৎ প্রতি কুমড়া ১২/= টাকা করে। এক পিক আপে কুমড়া ধরে ২ হাজার। প্রতি পিক আপ ভাড়া ৪,৫০০/= টাকা। ঢাকার শ্যামবাজার, যাত্রবাড়ী ও কাওরান বাজারে এর যথেষ্ট চাহিদা রয়েছে। যার ফলেই দূর্গাপুরের এইসব এলাকার কৃষকরা সাবলম্বী হয়েছে। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: ওমর ফারুক বলেন, বোরো চাষের বাইরে পতিত জমিতে সবজ্ িচাষের কৃষকগন কুমড়া চাষ করে লাভবান হয়েছে।
নিচ্ছেন।