গোপালগঞ্জ জাতীয় ঢাকা রাজনীতি

এ সম্পদ যেন আপদে পরিনত না হয়- ওবায়দুল কাদের

  images গৌরাঙ্গ লাল দাস, গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,ছাত্রলীগ আমাদের সম্পদ। তারুণ্য আমাদের সম্পদ। এ কারণে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ছাত্রদের হাতে বই তুলে দিয়েছিলেন।তবে কিছু কিছু জায়গায় এ সম্পদ আবার আপদ হয়। এতে সুনাম ক্ষুন্ন হয়। সম্পদ যদি আপদ হয় তা হলে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়।সারা দেশে ছাত্রলীগে কিছু কিছু আপদ আছে আমাদের সে আপদ মুক্ত করতে হবে।তিনি আজ শুক্রবার বিকেলে কোটালীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন। তিনি ছাত্রদের উদ্দেশ্যে বলেন,মানুষের ভালবাসার চেয়ে বড় সম্পদ আর কিছু নেই।রাজনীতিকের জীবনে মানুষের ভালবাসার কোন বিকল্প নেই।জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ দেশের মানুষকে ভালবেসে জীবন উৎসর্গ করেছেন।তোমরা বঙ্গবন্ধুর লেখা অসমাপ্ত আত্মজীবনী পড়। তা হলে তোমাদের মধ্যে মানুষের প্রতি ভালবাসা জন্মাবে।কোটালীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বাবুল হাজরার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও এফবিসিসিআই-র সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহম্মদ,জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি রাজা মিয়া বাটু,সাধারণ সম্পাদক ও গোপালগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক চৌধুরী এমদাদুল হক,ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম হুমায়ূন কবীর, কোটালীপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান হাওলাদার। সম্মেলন  উদ্বোধন করেন জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আব্দুল হামিদ।প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক। অনুষ্ঠানে অন্যানের বক্তব্য রাখেন,ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি উত্তম দাস,সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন আনু,কোটালীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম মন্নু প্রমূখ। ওবায়দুল কাদের আরো বলেন,বিশ্বব্যাংক হাত গুটিয়ে নেওয়ায় দলের মধ্যে অনেকেই বলেছিলেন পদ্মা সেতু হবে না।আমরা এখন নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর কাজ করছি।আগামী অক্টোবরের মধ্যে মুল সেতুর কাজ শুরু হবে।আমরা ২০১৭ সালের মধ্যে সেতুর সকল কাজ সম্পন্ন হবে এবং ২০১৮ সালে সেতুর উপর দিয়ে যানবাহন চলবে।আমি আশাবাদি মানুষ,আমি কাজে বিশ্বাসী।আমি মাল(টাকা) কামানোর ধান্ধা করি না।মন্ত্রী হবার পরে একদিনও বিদেশ সফর করিনি।পদ্মা সেতু নির্মিত হলে আমাদের জিডিপি বাড়বে।দক্ষিনাঞ্চলের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটবে।পদ্মা পাড়ে হংকং এর মতো মেগাসিটি হবে। নির্মিত হবে আধুনিক মানের আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর। স্বাধীনতার পর ৪৪ বছরে শেখ হাসিনা সরকারের আমলেই উন্নয়নের সর্বোচ্চ রেকর্ড সৃষ্ঠি হয়েছে। শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে পৃথিবীর মধ্যম আয়ের একটি আধুনিক দেশ।
এর আগে  মন্ত্রী কোটালীপাড়ায় নব নির্মিত কাজী মন্টু ফিলিং ষ্টেশনের উদ্বোধন করেন।এ সময় এফবিসিসিআই সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহম্মদ,জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী কাজী ফিরোজ রশীদ, এমপি,কোটালীপাড়া পৌরসভার মেয়র এইচ এম অহিদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।