চট্টগাম চট্টগ্রাম সারাদেশ

হাটহাজারীতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপের ঘটনায় ইউপি সদস্য সহ আটক ১৬।

কনক তালুকদার, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রাম হাটহাজারী উপজেলার চারিয়া এলাকায় গত বুধবার রাত আনুমানিক পৌনে এগারটায়একটি যাএিবাহী সিএনেজি অটোরিক্সায় হরতাল অবরোধকারীরা পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করলে চালক সহ ২জন দগ্ধ হয়। আহতরা হলেন যাএি রনজিত নাথ(৩২)ও অটো রিক্সাচালক মো: সাবের আহম্মদ(৩৫)। আহত দুজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে (চমেক)প্রেরন করা হয়। পেট্রোল বোমায় অগ্নিদগ্ধ চালক সাবেরের শরীরের ৮৫ ভাগ ও যাএি রনজিতের ৬০ ভাগ পুড়ে যায় বলে জানাযায়। ঘটনার পরপরই দুবৃত্তরা পালিয়ে যায়।ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি পেট্টোল বোমা,৫টি লাঠি উদ্ধার করা হয়। আহত অটোরিক্সা চালক সাবেরের বড়ভাই মনির আহম্মদ জানান,বুধবার রাত সাে ১০টার দিকে গ্যাস নিয়ে ফটিকছড়ি যাওয়ারন পথে চারিয়া বাজার এলাকার কাছাকাছি ব্রীজে এলে দুবৃত্তরা তার গাড়ি লক্ষো করে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে।স্থানীয়রা উদ্ধার কওে তাকে নাজিরহাট সাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে তার অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে স্থানান্তর করা হয়। আহত চালক সাবেরের বাড়ি ফটিকছড়ি লেলাং ইনিয়নের দমদমাস্থ ওমদা মিয়া সওদাগর বাড়ির তোফায়েল আহম্মদেও ছেলে। হাটহাজারী সিনিয়র পুলিশ সার্কেল এএসপি আ,ফ ম নিজাম উদ্দিন, ওসি মো: ইসমাইল ঘটনাস্থলে ছুটে যান। হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত)মোহাম্মদ সালাউদ্দীন জানান, পেট্রোল বোমায় দগ্ধদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে প্রেরন করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পেট্রোল বোমা,৫টি লাঠি ও অটোরিক্সাটি উদ্ধার করেছি। ঘটনার সাথে জড়িতদের আটকে পুলিশি অভিযান অব্যহত রয়েছে। এই ঘটনার পর থেকে পুলিশ রাত ও সকালে  বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ইয়াকুব নামে এক ইউপি সদস্য সহ আনুমানিক ১৬জনকে হাটহাজারী মডেল থানা পুলিশ আটক করে। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্থুতি নিচ্ছে বলে পুলিশ জানায়।