অপরাধ প্রধান খবর

চট্টগ্রামে বিপুল পরিমাণ বোমা ও বিস্ফোরকসহ আটক ৪

ctg-armচট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের হালিশহর থেকে ৭৫টি বোমা এবং বোমা তৈরির সরঞ্জামসহ জঙ্গি সন্দেহে ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব। এছাড়া জঙ্গি প্রশিক্ষণের বেশকিছু উপকরণও পাওয়া গেছে সেখানে। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বিশেষ অভিযান চালিয়ে এসব বোমা এবং বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব চট্টগ্রামের অধিনায়ক লেফটেনেন্ট কর্নেল মিফতা উদ্দিন জানান, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার বিএ ম্যানশন নামের একটি ভবনে অভিযান চালিয়ে এসব বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়। এসময় একজন নারীসহ ৩ জনকে আটক করা হয়।

মূলত গতকাল শুক্রবার থেকেই ঘিরে রাখা হয়েছিলো ভবনটি। আশেপাশের ভবনে অবস্থান নিয়েছিলো র‌্যাব সদস্যরা। পরে আজ শনিবার সকালে ভবনটির দোতলায় অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয় ৭৫টি গ্রেনেড আকৃতির বোমা এবং অন্তত ৫ বস্তা বোমা তৈরির সরঞ্জাম।

র‌্যাবের দাবি, দীর্ঘদিন ধরে এই আস্তানাটিকে জঙ্গিরা হাইড পয়েন্ট হিসেবে ব্যবহার করে আসছে। এছাড়া সেখান থেকে বেশকিছু প্রশিক্ষণের সময় ব্যবহৃত পোশাক উদ্ধার করা হয়েছে। গত ১৯ তারিখ হাট হাজারি, ২২ তারিখ বাঁশখালী থেকে যে দু’টি জঙ্গি আস্তানা জব্দের পর সেখান থেকে আটক করা ১৯ জনের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী আজকের এই অভিযান চালানো হয়। তবে এখন পর্যন্ত আটক ব্যক্তিরা কোন জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে জড়িতে সে সম্পর্কে কিছু জানায়নি র‌্যাব।

র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘আমাদের দেশটাকে আফগানিস্তান বানানোর একটা অপচেষ্টা ছিল। কিন্তু আমরা দেশের সাধারণ মানুষকে ধন্যবাদ জানাই। তারা কখনোই এ ধরনের জঙ্গিবাদকে প্রশ্রয় দেয় না।

তিনি আরও বলেন, ‘এর সঙ্গে অর্থনীতি জড়িত, কারিগরি সহায়তা জড়িত, এর পেছনে বুদ্ধিদাতা জড়িত এবং পেছন থেকে কারা গডফাদার রয়েছে তারা জড়িত। দেশের নিরাপত্তার জন্য, মানুষের নিরাপত্তার জন্য, সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য এই নেটওয়ার্কটাকে সম্পূর্ণভাবে ছেকে তুলে আনতে চাই। সেজন্য সকল নাগরিকের কাছ থেকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা চাইবো।’

এদিকে, উদ্ধার করা বোমাগুলো উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এবং অত্যাধুনিক বলে দাবি করছেন বিস্ফোরক বিশ্লেষকরা। এছাড়া যে পরিমাণ সরঞ্জাম সেখানে মজুদ ছিলো, তা দিয়ে বিপুল সংখ্যক বোমা তৈরি সম্ভব বলেও জানান তারা।