জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

এখনো সক্রিয় পাকিস্তানের দোসররা

 স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,হটনিউজ২৪বিডি.কম, ঢাকা: একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানের স্বপক্ষের শক্তির দোসররা এখনো সক্রিয় রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। শুক্রবার বিকেলে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর আয়োজিত ‘বাংলাদেশে গণহত্যা ও বিচার’ শীর্ষক তিন দিনের আন্তজার্তিক সেমিনারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত এ সেমিনারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘেরের ট্রাস্ট্রি ও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, আর্জেন্টিনার বিচারপতি হুয়াছিয়ো ওলিগাদো।

প্রধান অতিথির বক্তেব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে একাত্তরের গণহত্যা, লুণ্ঠন, ধর্ষণসহ মানবাধিকার লঙ্ঘনের অপরাধে বিচার কাজ চলছে। আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হচ্ছে। এ ট্রাইবুনাল নিয়ে নানামুখি আলোচনা- সমালোচনা থাকলেও তা থেমে থাকেনি।’ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলার মাটিতেই করা হবে বলেও জানান তিনি।

একই সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের সময় বিরোধিতাকারী শক্তির চক্রান্ত এখনো শেষ হয়ে যায়নি উল্লেখ করে মাহমদু আলী বলেন, ‘পরাজিত হয়ে পাকিস্তানের দোসররা বিভিন্নভাবে এদেশকে অশান্ত করার ফায়দা লুটতে ব্যস্ত সময় পার করছে। তাদের বিষয়ে দেশের সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’

বিশেষ অতিথি সাংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘যারা বাংলাদেশের জন্মের সময় বিরোধিতা করেছিল তারা এখনো এদেশের ক্ষতি সাধনে ব্যস্ত। কিন্তু সেই সুযোগ বর্তমান সরকার ও স্বাধীন বাংলাদেশের কোনো মানুষ দেবে না। এই কারণেই মুক্তিযোদ্ধাদের রক্তের ঋণ কিছুটা হলেও শোধ করতেই আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করা হচ্ছে। যুদ্ধাপরাধী যে দলেরই হোক না কেন, তাকে বিচারের আওতায় এনে বিচার করা হবে’

উল্লেখ্য, ‘বাংলাদেশে গণহত্যা ও বিচার’ শীর্ষক তিন দিনের আন্তর্জাতিক সেমিনার চলবে আরো দুই দিন। বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ বিষয়ক আইন বিশ্লেষকরা এ সেমিনার অংশ নিচ্ছেন। সেমিনারের শেষ দিন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার প্রক্রিয়া এবং বিভিন্ন ইস্যুতে একটি সুপারিশমালা সংবাদ মাধ্যমে উপস্থাপন করা হবে বলেও জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র।