কৃষি যশোর হটনিউজ স্পেশাল

ফেব্রুয়ারিকে সামনে রেখে ব্যস্ত যশোরের ফুল চাষিরা

ফুল চাষযশোর প্রতিনিধি : ১৩ ফেব্রুয়ারি বসন্ত দিবস, ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালবাসা দিবস এবং ২১ ফেব্রুয়ারি ভাষা দিবসকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছেন দেশের ফুলের রাজধানী যশোরের গদখালীর ফুল চাষিরা। ব্যবসায়ীরা বলছেন, এ দিনগুলোতে আট কোটির টাকার ফুল বিক্রির লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছেন তারা। আর ফুলের সম্ভাবনাকে আরও বিস্তৃত করতে ফুল গবেষণা কেন্দ্র স্থাপনসহ নানা উদ্যোগ নেয়ার কথা জানালেন জেলা প্রশাসক।

যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী, পানিসারা ইউনিয়নসহ বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদিত হচ্ছে রজনীগন্ধা, গোলাপ, জারবেরা, গাঁদা, গ্লাডিউলাস, জিপসি, রডস্টিক, কেলেনডোলা, চন্দ্র মল্লিকাসহ ১১ ধরণের ফুল। সারা বছর বাজারে ফুল সরবরাহ করলেও এখানকার চাষিদের মূল টার্গেট থাকে ভালবাসা দিবস, ২১ ফেব্রুয়ারির আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও বসন্ত দিবস। এ তিনটি দিবসে ফুল বিক্রি করেই মূলত সারা বছরের লাভ-লোকসানের হিসাব মেলান তারা। আর এক দেড় মাস পরই শুরু হচ্ছে মূল মৌসুম তাই গাছ লাগানো, পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন ফুল চাষিরা।

অন্যান্য ফসলের তুলনায় ফুল চাষ লাভজনক হওয়ায় দেশে বাণিজ্যিক ফুল চাষের জনক শের আলীর হাত ধরে এ এলাকার ৫ থেকে ৬ হাজার কৃষক এখন ফুল চাষ করছেন।

ফুল চাষি ও ব্যবসায়ী নেতারা জানান, এ তিনটি দিবসে কৃষকরা ৮ থেকে ১০ কোটি টাকার ফুল বিক্রির লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছেন তারা।

এদিকে ফুলের সম্ভাবনাকে আরো বিস্তৃত করতে ফুল গবেষণা কেন্দ্র স্থাপনসহ নানা উদ্যোগ নেয়ার কথা জানালেন জেলা প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তা ডক্টর হুমায়ূন কবীর।

ঝিকরগাছা উপজেলার প্রায় সাড়ে তিন হাজার হেক্টর জমিতে বাণিজ্যিকভাবে ফুলের চাষ হচ্ছে। সংশ্লিষ্টদের দাবি, আর একে কেন্দ্র করে দেশের প্রায় ১০ লাখ মানুষ ফুল বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িয়ে জীবিকা নির্বাহ করছেন।