প্রধান খবর রাজনীতি

৫ জানুয়ারীর নির্বাচন না হলে দেশে থাইল্যান্ডের পরিস্থিতি বিরাজ করত : মেনন

menonকামরূল আহসান, নিজস্ব প্রতিবদেক : বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার সাতদফা প্রস্তাবকে পুরাতন কাদুনী বলে অভিহিত করেছেন। গত বছর ৫ জানুয়ারী নির্বাচনের মধ্য দিয়ে বহু আগেই তার এই প্রস্তাবের কার্যকরিতা আবার প্রমানিত হয়েছে। জনগণ ঐ নির্বাচনে দেশের সংবিধান ও সাংবিধানিক ধারাবাহিকতাকে উর্দ্ধে তুলে ধরেছেন। আজ ১ জানুয়ারী পার্টির কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভায় মেনন বলেন, বিএনপি আন্দোলনে ‘দোলন’ আছে ‘আনন্দ’ নাই। নির্বাচনের বাস মিস করে তাদের এখন এর ওর দ্বারে ধর্না ও হাহাকার করা ছাড়া কোন উপায় নাই। মেনন বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বিএনপি-জামাতের হরতাল স্পষ্টই প্রমাণ করেছে তারা নিজেরাই এখন তাদের নিজেদের কর্মসূচীতে বিশ্বাস করে না। আর জনগণ তাদের সন্ত্রাসী আন্দোলনকে ঘৃণভাবে প্রত্যাখ্যান করেছে। সংবাদপত্রের পাতায় যে ঢিলেঢালা হরতালের খবর প্রকাশিত হয়, তারও অস্তিত্ব বাস্তবে ছিলনা। রাশেদ খান মেনন ওয়ার্কার্স পার্টির সকল ইউনিটকে আগামী ৫ জানুয়ারীর ‘মুক্তিযুদ্ধের অর্জন ও গণঅধিকার রক্ষা দিবস’ পালনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, ৫ জানুয়ারীর নির্বাচন না হলে দেশে এখন থাইল্যান্ডের পরিস্থিতি বিরাজ করত।
ঢাকা মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি আবুল হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন পলিটব্যুরো সদস্য কামরূল আহসান, কেন্দ্রীয় নেতা জাকির হোসেন রাজু, ঢাকা মহানগর নেতা কিশোর রায়, আলী সিকদার, আবুল কালাম, মুর্শিদা আক্তার ডেইজী, জাহাঙ্গীর আলম ফজলু, কামরূল হাসান নাসিম, আনোয়ারুল ইসলাম টিপু, মুতাসিম বিল্লাহ সানি প্রমুখ। সভায় ৫ জানুয়ারী ঢাকায় বিকাল ৩.৩০ টায় পার্টি অফিস প্রাঙ্গনে জমায়েত ও লাল পতাকা মিছিল অনুষ্ঠিত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।