অপরাধ খুলনা ঝিনাইদাহ যশোর

ঝিনাইদহে গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ

 এস,আই মল্লিক, ঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে মঙ্গলবার দুপুরে সুমাইয়া (২৫) নামের এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। মৃত্যুর পর স্বামী শামীম বিশ্বাস তাকে হাসপাতালে ফেলে রেখে পালিয়ে যাওয়ায় তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে নিহতের পারিবারের অভিযোগ। জানা যায়, গত দেড় বছর আগে কালীগঞ্জ উপজেলার লাউতলা সানবান্দা গ্রামের মহাসীন আলীর পুত্র পার্শ্ববর্তী বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক শামীম বিশ্বাসের সাথে মহেশপুর উপজেলার যাদবপুর গ্রামের শাহজাহান আলীর কন্যা সুমাইয়ার গভীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এর প্রেক্ষিতে শামিম তার প্রথম স্ত্রী এক সন্তানের জননী ফাহিমাকে তালাক দিয়ে ১ বছর পূর্বে সুমাইয়াকে বিয়ে করে। এরপর শামিম তার সুমাইয়াকে নিয়ে কোটচাঁদপুর শহরের বিহারীপাড়া রোড়ের মোশারফ আলীর বাসায় ভাড়া থাকত।

তাদের সংসার সুখে-স্বাচ্ছন্দ্যে চলছিল। এলাকাবাসী জানায়, প্রথম স্ত্রীর সন্তান চৈতি (৪)কে নিয়ে প্রায়ই শামিমের সাথে তার স্ত্রীর ঝগড়া বিবাদ হতো। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তার স্ত্রী গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে এমন কথা বলে শামিম তড়িঘড়ি সুমাইয়াকে কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করার পর অজ্ঞাত কারণে শামিম পালিয়ে যায়। এরপর তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করে এবং মোবাইলে যোগাযোগ করেও তার কোন সন্ধান না পাওয়ায় জনমনে নানা ধরনের প্রশ্নের সৃষ্টি করেছে। নিহত সুমাইয়ার বোন জানান, আমার আপুকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই।
এ ব্যাপারে কোটচাঁদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহিদুল ইসলাম শাহীন বলেন, মৃত্যুর ঘটনা সম্পর্কে এখনই নিশ্চিতভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না, তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে আসল ঘটনা বেরিয়ে আসবে।