বিনোদন

আজ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নির্বাচন

4

হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা: বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির দ্বিবার্ষিক নির্বাচনকে ঘিরে এফডিসিতে বিরাজ করছে উসবমুখর পরিবেশ। শুক্রবার অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে লড়াই হচ্ছে দেলোয়ার জাহান ঝন্টু-মুশফিকুর রহমান গুলজার পরিষদ এবং কাজী হায়াৎ-এফআই মানিক পরিষদের মধ্যে।

সমিতির ৩৩৫ জন ভোটার এদিন ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন তাদের পছন্দের প্যানেলকে। পূর্ণ প্যানেল নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে দুটি পক্ষ। পরিচালক সমিতির সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন দেলোয়ার জাহান ঝন্টু ও কাজী হায়াৎ। সহসভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সোহানুর রহমান সোহান ও মনতাজুর রহমান আকবর।

যুগ্ম-মহাসচিব পদে শাহিন খান ও এসএ হক অলিক, কোষাধ্যক্ষ পদে সেলিম আজম ও আহমেদ ইলিয়াস ভূঁইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে বজলুর রাশেদ চৌধুরী ও জয়নাল আবেদিন, আন্তর্জাতিক ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে মোস্তাফিজুর রহমান বাবু ও জি সরকার এবং প্রচার-প্রকাশনা ও দফতর সম্পাদক পদে আহমেদ আলী মণ্ডল ও সালাউদ্দিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

৯টি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ১৮ জন প্রার্থী। কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা হলেন নাজমুল হুদা মিন্টু, সিবি জামান, সাইদুর রহমান সাঈদ, আবদুস সামাদ খোকন, হাফিজ উদ্দিন, আবুল খায়ের বুলবুল, শিল্পী চক্রবর্তী, রায়হান মুজিব, সিরাজ হায়দার, জামশেদুর রহমান, অনুতোষ বড়ুয়া চঞ্চল, জীবন রহমান, হানিফ আকন্দ দুলাল, বদিউল আলম খোকন, পল্লী মালেক, ওয়াজেদ আলী বাবলু, সায়মন তারেক ও বাপ্পারাজ।

হায়াৎ-মানিক পরিষদের সভাপতি পদপ্রার্থী কাজী হায়াৎ এর কাছে নির্বাচনী অঙ্গীকার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি দ্য রিপোর্টকে বলেন, ‘আমার প্যানেলের নির্বাচনী ইশতেহার হলো ইন্ডাস্ট্রিনির্ভর যে চলচ্চিত্র তা এখন সংকটাপূর্ণ, ভিডিও পাইরেসি দ্বারা আক্রান্ত, তা রোধ করা। এছাড়াও কে হল ভাড়া দেবে, কে মেশিন ভাড়া দেবে এসব নিয়ে ঝামেলা হচ্ছে। হল মালিকরা হলগুলোকে দর্শক উপোযোগী করে তুলছে না। দর্শকদের আর্থ-সামাজিক উন্নতি হয়েছে এটা তারা স্বীকার করতে চায় না। আমরা নির্বাচিত হলে সিনেমা হলগুলোকে আধুনিক করব। এফডিসি চলচ্চিত্র নির্মাণের একমাত্র ক্ষেত্র বলে আমরা জানি, সেখানে চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে না। ডিজিটাল চলচ্চিত্র নির্মাণের যন্ত্রপাতি এখানে নেই। কীভাবে এফডিসিকে আবার সচল করা যায় এ ব্যাপারে আমরা সচেষ্ট থাকব। চলচ্চিত্র আমাদের জীবন। চলচ্চিত্র আমাদের সাধনা। চলচ্চিত্রের এ দুঃসময়ে অস্তিত্ব রক্ষার সংগ্রামই আমাদের অঙ্গীকার।’

ঝন্টু-গুলজার পরিষদের সভাপতি পদপ্রার্থী দেলোয়ার জাহান ঝন্টু বলেন, ‘পরিচালক সমিতিতে যারা আছে তাদের অনেক দুঃখ-কষ্ট আছে। আমরা সুখে-দুঃখে সব সময় চলচ্চিত্র পরিচালকদের পাশে থাকেব। অনেকের হাতে যখন চলচ্চিত্র থাকে না সেসময় তাদের পরিবারকে দূরবস্থার মধ্যে পড়তে হয়। আমরা সে সময় তাদের পরিবারের পাশে থাকব। এছাড়াও ভিডিওপাইরেসি প্রতিরোধ, বিদেশী চলচ্চিত্রের আগ্রাসন থেকে দেশীয় চলচ্চিত্র উন্নয়ন করাই আমাদের অঙ্গীকার।’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সাধারণ ভোটার ‘স্বপ্ন যে তুই’ চলচ্চিত্রের পরিচালক মুনিরুল ইসলাম সোহেল বলেন, ‘একজন সাধারণ ভোটার হিসেবে আমার চাওয়া পরিচালক সমিতির যারা সদস্য নির্বিঘ্নে যেন তারা তাদের চলচ্চিত্র নির্মাণ করতে পারেন। কোনো ধরনের ঝামেলা হলে যেন পরিচালক সমিতি তাদের সহযোগিতা করে। সমিতির একজন সদস্য হিসেবে আমি সব সময় চাইব সমিতি আমার পাশে থাকুক।’

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির নির্বাচন পরিচালনার জন্য আবদুল লতিফ বাচ্চুর নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি নির্বাচন কমিশন কাজ করছে। নির্বাচন কমিশনের সদস্য হচ্ছেন নূর মোহাম্মদ মনি ও আসম শফিকুর রহমান। নির্বাচন সংক্রান্ত অভিযোগ নিষ্পত্তির জন্য তিন সদস্যবিশিষ্ট আপিল বোর্ডের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করছেন সৈয়দ হাসান ইমাম। সদস্য দু’জন হলেন আজিজুর রহমান ও আবু মুসা দেবু।

###নূরে আলম জীবন###