জাতীয় প্রধান খবর

বঙ্গোপসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে ৫৪০ জনের মৃত্যু

3

হটনিউজ২৪বিডি.কম,ডেস্ক: জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর-এর সম্প্রতি প্রকাশিত এক প্রতিবেদন বলছে, উন্নত জীবনের আশায় অন্য দেশে যেতে নৌকা করে বঙ্গোপসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে চলতি বছর ৫৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এই সময় প্রায় ৫৪ হাজার মানুষ এভাবে বঙ্গোপসাগর পাড়ি দেয়। বেশিরভাগ যাত্রা বাংলাদেশ কিংবা মিয়ানমার থেকে শুরু হয় বলে জানিয়েছে ইউএনএইচসিআর।

জাতিসংঘের এই সংস্থার হিসেবে ২০১৪ সালে রেকর্ড সংখ্যক মানুষ জীবিকা কিংবা সংঘাত এড়ানোর লক্ষ্যে নৌকা করে সাগর পাড়ি দিয়েছে। সংখ্যাটা প্রায় তিন লক্ষ ৪৮ হাজার। এ সময় মারা যায় প্রায় চার হাজার তিনশো জন। সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ মারা যায় ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে। প্রায় তিন হাজার চারশো জন। ইউএনএইচসিআর-এর হিসেবে চলতি বছর প্রায় দুই লক্ষ সাত হাজার মানুষ ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়েছে। এর আগে ২০১১ সালে সর্বোচ্চ ৭০ হাজার মানুষ ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়েছিল। সিরিয়া, গাজা, ইরাক ও লিবিয়ায় সংঘাতের কারণে এবার সবচেয়ে বেশি লোক নৌকায় করে ইউরোপে পাড়ি জমানোর চেষ্টা করে।

সমুদ্র পাড়ি দিতে গিয়ে নিহতের সংখ্যার হিসেবে ভূমধ্যসাগরের পরেই রয়েছে বঙ্গোপসাগর। এরপর ‘হর্ন অফ আফ্রিকা’। লোহিত সাগর আর ‘গালফ অফ এডেন’ পাড় হতে গিয়ে প্রাণ হারায় ২৪২ জন।
ইউএনএইচসিআর প্রধান অ্যান্টোনিও গুটেরেস উন্নত দেশগুলোকে অভিবাসীদের নিরুৎসাহিত করতে সীমান্ত বন্ধ না করার অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘‘নিরাপত্তা ও অভিবাসী ব্যবস্থাপনা সব দেশের জন্যই উদ্বেগের। কিন্তু নীতিগুলো এমন হওয়া উচিত নয় যেন মানুষের জীবন হুমকির মুখে পড়ে।” -ডয়চে ভেলে