প্রধান খবর

দেশ গঠনের মহতী কাজে বিজিবির সহায়তা চান প্রধানমন্ত্রী

pm

হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে সবকিছু করবে সরকার। দেশ গঠনের মহতী কাজে বিজিবির সহায়তা চান তিনি।

শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় বিজিবি দিবস উপলক্ষে সদর দফতর পিলখানায় আয়োজিত কর্মসূচি পরিদর্শনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিজিবির সন্তানদের সুশিক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঢাকায় ছাত্রদের জন্য আটতলাবিশিষ্ট ও ছাত্রীদের জন্য পাঁচতলাবিশিষ্ট ছাত্রীনিবাস গড়ে তোলা হয়েছে। বিজিবি সদস্যদের জন্য বহুতল পারিবারিক বাসস্থান গড়ে তোলা হয়েছে।তিনি বলেন, ‘২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে একটি মধ্যম আয়ের দেশ। ২০৪১ সালের মধ্যে আমরা এ দেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধিশালী দেশ হিসেবে গড়ে তুলব।’

বীরত্বপূর্ণ অবদান রাখায় বিজিবির জওয়ান ও অফিসারদের রাষ্ট্রীয় পদক প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী। দিবসটি উদ্‌যাপন উপলক্ষে বিজিবি নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।
প্রধানমন্ত্রী সর্বশেষ ২০০৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি পিলখানায় তৎকালীন বিডিআর সদর দফতরে গিয়েছিলেন। ওই দিন পিলখানায় রক্তাক্ত বিদ্রোহে ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৩ জন নিহত হন। পিলখানা থেকে শুরু হওয়া ওই বিদ্রোহ ছড়িয়ে পড়ে দেশের বিভিন্ন ইউনিটে। যার অবসান ঘটে ২৭ ফেব্রুয়ারি। এরপর সীমান্ত রক্ষী বাহিনী বিডিআরের নাম পরিবর্তন করে বিজিবি করা হয়। পরিবর্তন কার হয় এই বাহিনীর পোশাকও।