সাহিত্য

লিখতে হলে পড়তে হবে

লিখতে হলে পড়তে হবে; পড়ার কোনো বিকল্প নেই-
জীবনটাকে চিনতে হবে, চিনতে হবে নিসর্গকেই।
সবার ওপর সত্য মানুষ… ধর্ম রাখো বুকের ভেতর-
সবার কাছে শেখার আছে; হোক না সে ওই কামার-মেথর।
সাম্প্রদায়িক হলেই বিপদ; মনুষ্যবোধ শূন্য হবে-
তখন তুমি যা-ই লেখো না সাহিত্য-মান ক্ষুণ্ণ হবে।
নিসর্গ আর মানবতা জানতে পড়ো রবি ঠাকুর
মিথ-পুরাণে জ্ঞান না হলে বুঝবে না কী মহিষাসুর
চাও কবিতা লিখতে তুমি? সবার আগে ছন্দ বোঝো;
জুঁই-চামেলি-হাস্নুহেনা, শেফালিকার গন্ধ বোঝো?
লজ্জাবতী-বেতসলতা; ইত্যাদিকে চিনতে হলে-
যাও চলে ওই দূরের কোনো পাহাড়-মাঠে-বনস্থলে।
পক্ষি-পাখি-বিহঙ্গ বা বিহগ– তুমি যেটাই বলো-
পাখ-পাখালির ধরন-বরণ জানতে দূরে হারাই চলো।
ষড়ঋতুর দেশ আমাদের কণ্ঠে যে তার নদীর মালা;
দেয় পাহারা পাহাড়; পাশে নীলসাগরের ঢেউ-উজালা।
চির-সবুজ সোঁদরবনে কুমির, মৃগ, বাঘের বাসা-
কতোটুকুই জানো এদের— যা জানো সব ভাসা-ভাসা!
লিখতে হলে জানতে হবে, জানতে হবে দেশকে আগে-
জানতে হলে মা-মাটিকে অধ্যবসায়-চর্চা লাগে।
পড়ার কোনো বিকল্প নেই; পড়তে হবে লিখতে হলে…
অন্যথা যা লিখবে তুমি বর্জ্য হয়ে পড়বে জলে।

 

###ফারুক নওয়াজ###