প্রধান খবর

কার্যকর ও সক্ষম বিমানবাহিনী গড়ে তোলা হবে

PM

হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আধুনিকায়নের মাধ্যমে বিমানবাহিনীকে কৌশলগতভাবে উন্নত, শক্তিশালী ও সক্ষম করে তোলার পুনরায় প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন।

তিনি বলেন,‘আর্থিক সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর প্রাক্কালে ২০২১ সালের মধ্যে বিমানবাহিনীকে আধুনিকায়নের জন্য সরকার সব ধরনের কার্যকর ব্যবস্থা নেবে।’

বুধবার কুর্মিটোলায় বিএএফ বঙ্গবন্ধু ঘাঁটিতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বিমান বাহিনীতে ‘কে-এইট ডব্লিউ’ প্রশিক্ষণ বিমান অন্তর্ভুক্তকরণ উপলক্ষে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

শেখ হাসিনা আশা প্রকাশ করেন ‘কে-এইট ডব্লিউ’ প্রশিক্ষণ বিমান অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় বিমানবাহিনীর প্রশিক্ষণের সক্ষমতা বিশ্বের অন্যান্য দেশের সমপর্যায়ে উন্নীত হবে। বিমানবাহিনী আরো নিরাপদ ও কার্যকর হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘খুব শিগগিরই বিমানবাহিনীতে অত্যাধুনিক এমআই ১৭১ হেলিকপ্টার, পিটি৬ যুদ্ধবিমান, এলইটি-৪১০ যুদ্ধবিমান, এডব্লিউ-১৩৯ হেলিকপ্টার ও ওয়াইএকে-১৩০ যুদ্ধবিমান যুক্ত হবে।’

পরে প্রধানমন্ত্রী উইং কমান্ডার শরীফ মুস্তাফার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে কে-৮ডব্লিউ এর কমান্ড আদেশ হস্তান্তর করেন। এ উপলক্ষে এক চৌকষ কমান্ড প্যারেডের আয়োজন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী প্যারেড পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করেন। প্যারেড পরিদর্শনের পর প্রধানমন্ত্রী নতুন সংযুক্ত কে-৮ডব্লিউ যুদ্ধ বিমানের বর্ণাঢ্য ফ্লাইং প্রত্যক্ষ করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী কুর্মিটোলা বিএএফ বঙ্গবন্ধু ঘাঁটিতে পৌঁছালে বিমানবাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল মোহাম্মদ এনামুল বারী ও ঘাঁটির কমান্ডিং অফিসার এয়ার কমোডোর এম ওবায়দুর রহমান তাকে অভ্যর্থনা জানান। এসময় কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টারা, রাষ্ট্রদূত, নৌ ও সশস্ত্র বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।