অপরাধ চট্টগ্রাম চাঁদপুর

চাঁদপুরের নদীতে ১১ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ

 নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, চাঁদপুর: জাতীয় মাছ ইলিশ রক্ষায়  ৫ অক্টোবর থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত ১১দিন চাঁদপুরের পদ্মা-মেঘনাসহ সারাদেশে ইলিশ ধরা ও বিক্রি বন্ধ। তবে চাঁদপুরের মেঘনায় ভরা মৌসুমে ইলিশ না ধরা পড়ায় এ সময়টাতে জেলেদের মাছ ধরা থেকে বিরত রাখা যাবে কী না সে নিয়ে বেশ সন্দেহ দেখা দিয়েছে। এ সময়টাতে সরকারিভাবে সহায়তা দেয়ার দাবি জানিয়েছে চাঁদপুরের জেলেরা। ২০১২ সালের সংশোধিত মৎস্য সংরক্ষণ ও সুরক্ষা আইন অনুযায়ী আশ্বিনের ভরা পূর্ণিমার দিন অর্থাৎ ৮ অক্টোবর  এর আগে ও পরের পাঁচ দিন মোট ১১ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ থাকবে। মতলবের ষাটনল থেকে হাইমচর পর্যন্ত চাঁদপুরের এ ৬০কিলোমিটার এলাকা মা ইলিশ ডিম ছাড়ে। তবে চাঁদপুরের মেঘনায় ভরা মৌসুমে ইলিশ না ধরা পড়ায় এ সময়টাতে জেলেদের মাছ ধরা থেকে বিরত রাখা সম্ভব নাও হতে পারে। জেলেরা বলছেন এ বছর নদীতে মাছ পাওয়া যায় নি, এখন পাওয়ার সময় হয়েছে আর এখন সরকার দিলো অভিযান।  এমন হলে আমাদের পেট চলবে কি ভাবে? কোন কোন জেলে অবশ্য বললেন তারা নিষেধাজ্ঞা মেনে চলবেন এবং এই সময়টাতে জাল ও নৌকা ঠিকঠাক করে নেবেন। চাঁদপুর মৎস্য গবেষণা ইনিস্টিউটের ইলিশ বিষেজ্ঞরা জানান, একটি পরিপক্ক ইলিশ প্রজনন মৌসুমে  ৩ থেকে ২০লাখ ডিম ছাড়তে পারে। ১১ দিন ইলিশগুলোকে ডিম ছাড়ার সুযোগ দিলে বছরে ২৮ হাজার কোটি জাটকা উৎপাদিত হবে। তাই মা ইলিশদের এ সুযোগ দেয়া উচিৎ। জেলেদের পুনর্বাসন বা সহায়তার ব্যবস্থা না করে মাছ ধরার উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে কতটুকু ভাল ফল বয়ে আনা সম্ভব হবে তা এক্ষুণি ভেবে দেখা প্রয়োজন বলে মনে করছেন অভিজ্ঞজনরা।