খেলা

গোল না খেলেই শেষ চারে বায়ার্ন ও আটলেটিকো

ক্রীড়া ডেস্ক, ৯ এপ্রিল (হটনিউজ২৪বিডি.কম) : উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ চারে পৌঁছাতে বুধবার মাঠে নামছে চার দল। নিজেদের মাঠে পাওয়া ১-১ গোলের ড্র নিয়ে বায়ার্ন মিউনিখের মাঠ আলিয়ানৎস আরেনায় দ্বিতীয় লেগ লেখতে যাচ্ছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ক্যাম্প ন্যুতে বার্সেলোনা ও আটলেটিকো মাদ্রিদের প্রথম লেগের ম্যাচটিও শেষ হয়েছিল ১-১ গোলের সমতায়? বুধবার তাদের দেখা হচ্ছে আটলেটিকোর মাঠ ভিনসেন্তে কালদেরনে।

আগের লেগে সমতা থাকায় বুধবার যারাই জিতবে, তারা পৌঁছে যাবে সেমিতে। অবশ্য গোলশূন্য ড্র হলেও বায়ার্ন আর আটলেটিকোর শেষ চার আটকাবে না। আর না জিতেও সেমিতে যেতে হলে ম্যান ইউ আর বার্সেলোনাকে অন্তত ২-২ গোলে ড্র করতে হবে, কারণ প্রতিপক্ষের মাঠে বেশি গোল দেয়ার হিসাবে এগিয়ে থাকবে তারাই।

আর প্রথম লেগের মতো দুটি ম্যাচই যদি ১-১ সমতায় শেষ হয়, তাহলে খেলা গড়াবে টাইব্রেকারে।

গত মৌসুমের ‘ট্রেবল’জয়ী বায়ার্ন মিউনিখকে নিজেদের মাঠে খেলতে হচ্ছে মাঝমাঠের বড় ভরসা শোয়াইনস্টাইগারকে ছাড়াই।  ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ড্র ম্যাচে লাল কার্ড দেখে এই ম্যাচে নিষিদ্ধ তিনি।

তারপরও আক্রমণাত্মক খেলে জয় দিয়েই শেষ চারে পৌঁছানোর আশা করছেন দলটির সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার দান্তে। ‘‘আমাদের জয়ের জন্যই খেলতে হবে।  গোলশূন্য ড্রয়ের আশায় থাকলে আমরা হেরেও যেতে পারি। ”

অবশ্য আলিয়ানৎস আরেনায় সবশেষ চার ম্যাচে কোনো ইংলিশ ক্লাবের বিপক্ষে জয় পায়নি জার্মান দলটি।

২০১২-এর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ১-১ গোলে সমতার পর টাইব্রেকারে বায়ার্নকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল চেলসি।  সেই ইতিহাস এবার স্বপ্ন দেখাচ্ছে ইউনাইটেডকে। এই ইংলিশ দলের ফরাসি ডিফেন্ডার পাট্রিস এভরা সবাইকে সেই ইতিহাসই মনে করিয়ে দিচ্ছেন।

আটলেটিকোকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিতে পৌঁছাতে হলে মুছে ফেলতে হবে চার দশকের ব্যর্থতার ইতিহাস। সেই ১৯৭৪ সালের পর ইউরোপীয় শ্রেষ্ঠত্বের শেষ চারে কখনই পৌঁছাতে পারেনি স্প্যানিশ দলটি।

নিজেদের মাঠের সুবিধা পুরোপুরি কাজে লাগাতে চায় আটলেটিকো। সমর্থকরাও আশা করছেন, আগের ম্যাচে চোট পাওয়া স্ট্রাইকার ডিয়েগো কস্টা বুধবারই মাঠে ফিরতে পারবেন।

অন্যদিকে বার্সেলোনা মুখিয়ে আছে টানা সপ্তমবারের মতো উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিতে পৌঁছানোর জন্য।  ইতিহাসও ঝুঁকে আছে তাদের দিকে।

সব ধরনের টুর্নামেন্টে বার্সেলোনা ও আটলেটিকো মাদ্রিদের এ পর্যন্ত দেখা হয়েছ ১০৫ বার, যার মধ্যে ৬০ বারই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে বার্সা।  আটলেটিকো জিতেছে ১৯টি ম্যাচ, বাকি ২৬টি ড্র হয়েছে।