জাতীয়

প্রথম আলোর বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দেয়া রুলের আদেশ বৃহস্পতিবার

হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা ১১ মার্চ  :   দৈনিক প্রথম আলোর বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দেয়া রুলের বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী বৃহস্পতিবার দিন ধার্য করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার শুনানি শেষে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচপরপতি জাফর আহমেদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ দিন ধার্য করেন।

তবে সাংবাদিক সংগঠন ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটি (ডিআরইউ), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও বরিশাল বিভাগীয় সাংবাদিক সংগঠনসহ দৈনিক সমকাল ও নয়া দিগন্ত পত্রিকার বিরুদ্ধে রুলের শুনানির জন্য বুধবার দিন ধার্য রয়েছে।

শুনানির সময় প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমান আদালতে হাজির ছিলেন। অন্য কোনো বিষয়ে বা ছোট করার জন্য ডাকা হয়নি, শুধুমাত্র দুই তিনটি কথা শুনতে ডাকা হয়েছে উল্লেখ করে আদালন তাঁকে জিজ্ঞেস করেন, ‘আদালত প্রসঙ্গে যে কলামটি পত্রিকায় প্রকাশ হয়েছে তা আপনি দেখেছেন কি না?’

এ পর্যায়ে মতিউর রহমান আদালতের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি এ কলামটি পত্রিতায় প্রকাশ করার আগে ও পরে পড়েছি। তারপরও ২৪ পৃষ্ঠার এ পত্রিকার সব পাতা আমার একার পক্ষে দেখার সুযোগ হয় না।’

তিনি বলেন, ‘পত্রিকায় কোথাও কোথাও ভুল থাকতে পারে। এগুলো ইচ্ছাকৃত ভুল নয়।’

পত্রিকা প্রকাশে কোনো নীতিমালা আছে কি না?- আদালতের এমন প্রশ্নে মতিউর রহমান বলেন, ‘হ্যাঁ, আমাদের নীতিমালা আছে। আমরা কোড অব ইথিক্স (নৈতিকতা) মেনে চলি।’

কয়েকটি বিদেশী পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের বিষয়ে উদাহরণ দিয়ে আদালত বলেন, ‘ওইসব পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদ বা আর্টিকেল প্রকাশের দায়িত্ব স্ব স্ব লেখকের।’ এ ব্যাপারে মতিউর রহমানের কাছ থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি আমার পত্রিকার একজন সম্পাদক ও প্রকাশক হিসাবে এর দায় দায়িত্ব নেব না-তা বলা ঠিক হবে না।’

সর্বশেষ তিনি আদালতের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমরা বিচার বিভাগকে হেয় করতে চাই না। আমি ব্যক্তিগতভাবে জামিন মঞ্জুরের পক্ষে।’

প্রথম আলোর বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দেয়া রুলের জবাবের হলফনামায় মতিউর রহমান নিজে স্বাক্ষর করেছেন বলে তিনি আদালতকে জানান। তিনি বলেন, ‘বিশেষ কোনো উদ্দেশ্যে এ রিপোর্ট লেখা হয়নি। তারপরও যদি কোনো ভুল হয়ে থাকে তা স্বীকার করতে আমার কোনো আপত্তি নেই।’