অর্থ ও বাণিজ্য

চিলিতে বাংলাদেশি তরুণদের বিনিয়োগের আহ্বান

ঢাকা, ২৬ ফেব্রুয়ারি (হটনিউজ২৪বিডি.কম) : চিলির সরকারের নেওয়া ‘স্টার্ট-আপ চিলি’ নামে প্রকল্পটিতে বাংলাদেশের তরুণদের বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রদূত ক্রিস্টিয়ান ব্যারোস। একই সঙ্গে তিনি ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্পসারণের লক্ষ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরো উন্নত করার আহ্বান জানান।

বুধবার মতিঝিলে ঢাকা চেম্বার ভবনে ডিসিসিআই’র সভাপতি মোহাম্মদ শাহজাহান খানের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এ আহ্বান জানান চিলির রাষ্ট্রদূত।

ক্রিস্টিয়ান ব্যারোস বলেন, চিলির সরকার ‘স্টার্ট-আপ চিলি’ নামে একটি প্রকল্প গ্রহণ করেছে। যার মাধ্যমে সারা বিশ্ব থেকে উদীয়মান ও সম্ভাবনাময় উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিয়ে বিনিয়োগে উৎসাহিত করা হচ্ছে। এ প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে ৭০টি দেশের ব্যবসায়িক প্রকল্প সম্বলিত ৫,৬০০টি আবেদন জমা পড়েছে।

ঢাকা চেম্বারের সভাপতি মোহাম্মদ শাহজাহান খান বলেন, ২০১৩ সালে চিলির সরকার বাংলাদেশি পণ্য চিলিতে রপ্তানির ক্ষেত্রে শুল্ক মুক্ত সুবিধা দিয়েছে। ফলে দুদেশের মধ্যেকার ব্যবসা-বাণিজ্য আরো দ্রুত বৃদ্ধি পাবে।

তিনি আরো বলেন, গেল বছরের সেপ্টেম্বরে চিলির অর্থমন্ত্রণালয় উন্নয়নশীল দেশসমূহের পণ্য চিলিতে রপ্তানির ক্ষেত্রে শূণ্য হারে কাস্টমস ফি আরোপ করেছে। সে হিসেবে বাংলাদেশি পণ্যের ক্ষেত্রেও এই সুবিধা বলবৎ রাখার আহবান জানান ঢাকা চেম্বারের সভাপতি।

তিনি চিলির ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশ থেকে আরো বেশি হারে টেক্সটাইল, তৈরি পোষাক, পাট ও পাটজাত পণ্য, পাদুকা এবং ঔষধ আমদানির আহবান জানান।

ডিসিসিআই সহ-সভাপতি খন্দকার শহীদুল ইসলাম, পরিচালক হায়দার আহমদ খান, হুমায়ুন রশীদ, মুক্তার হোসেন চৌধুরী, হোসেন এ সিকদার, আব্দুস সালাম, মো. শোয়েব চৌধুরী, এ কে ডি খায়ের মোহাম্মদ খান, চিলি দূতাবাস নিযুক্ত কমার্শিয়াল কাউন্সিলর রডরিগো গেলারডো এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত চিলির কনস্যুল আসিফ এ চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।