চট্টগাম চট্টগ্রাম সারাদেশ

চিকিৎসকের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

চট্টগ্রাম, ২৪ ফেব্রুয়ারি (হটনিউজ২৪বিডি.কম) : চট্টগ্রামে এক প্রতারক চিকিৎসকের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী রোগী।

প্রতারক চিকিৎসকের নাম সুভাষ চন্দ্র সেন। যিনি নিজেকে পাইলস বিশেষজ্ঞ হিসেবে পরিচয়ের মাধ্যমে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করছেন বলে জানান ওই ভুক্তভোগী।

ভুক্তভোগী চট্টগ্রামের মধুবন লিমিটেড এর রাঙ্গুনিয়ার পরিবেশক মাহাবুবুল আলম সিকদার জানান, চট্টগ্রামসহ রাঙ্গুনিয়ার আনাচে কানাচে ‘অভিজ্ঞ অর্শ রোগের চিকিৎসক সুভাষ চন্দ্র সেন’ এই নামের একটি বিজ্ঞাপন চোখে পড়ে। তিনি মলদ্বার দিয়ে রক্ত দেখা যাওয়ায় বিজ্ঞাপন দেখে গত ১৯ জানুয়ারি সন্ধ্যায় বহদ্দারহাট বাস টার্মিনালে সুভাষ চন্দ্র সেনের চেম্বারে চিকিৎসার জন্য যান।

সুভাস চন্দ্র তাকে চেক আপ করে বলেন তার পলিপ্স (পায়ুপথে গোটা ) হয়েছে। জানান, বিনা অপারেশনে চিকিৎসা করতে ২০ হাজার টাকা লাগবে। তিনদিন আসতে হবে চেম্বারে, স্বাভাবিক সব কাজ করা যাবে। আর অপারেশন করলে ১০ হাজার টাকা লাগবে। ২/৩ দিন হাসপাতালে থাকতে হবে, অন্তত ২০ দিন বেড রেষ্ট থাকতে হবে। তখন তিনি বিনা অপারেশনের চিকিৎসার জন্য রাজী হয়ে যান।

সুভাস একটি প্রেসক্রিপশন লিখে দেন এবং চিকিৎসা বাবদ চিকিৎসক ৪ হাজার টাকা অগ্রিম নেন। পরদিন আসতে বলেন। কিন্তু চিকিৎসা নিয়ে মাহবুবের সন্দেহ হলে পরদিন অন্য চিকিৎসকের কাছে জানতে পারেন পাইলস বা অন্য কিছু হয়নি, কোষ্ঠকাঠিন্যের জন্য ব্লাড যাচ্ছে। এ চিকিৎসকের ওষুধ ও পরামর্শে দুই দিনেই সুস্থ হয়ে উঠেন মাহবুব।

ব্যবসায়ী মাহবুব অভিযোগ করেন, কথিত পাইলস বিশেষজ্ঞ সুভাষ চন্দ্র সেন বিভিন্ন কায়দায় অভিনব বিজ্ঞাপন প্রচার করে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করছেন। কোন রোগীর পাইলস না হলেও তার পাইলস হয়েছে বলে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে অপারেশনের নামে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। এ ব্যাপাওে তিনি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এ চিকিৎসক সুভাষ চন্দ্র সেন জানান, ‘আমি ভুয়া ডাক্তার নই। আমি সনদধারী পাইলস বিশেষজ্ঞ।’ প্রতারণার অভিযোগও অস্বীকার করেন তিনি।