অপরাধ আন্তর্জাতিক ঢাকা

ফাঁসির ‘চাপ’ ঠেকাতে দেয়ার আহ্বান পাকিস্তান জামায়াতের

 হটনিউজ ডেস্ক,ঢাকা,২ফেব্রুয়ারী: দশ ট্রাক অস্ত্র মামলায় মতিউর রহমান নিজামীর মৃত্যুদণ্ডের আদেশ হওয়ায় উষ্মা প্রকাশ করে শেখ হাসিনা সরকারকে ঠেকাতে পাকিস্তান ও মুসলিম দেশগুলোর পদক্ষেপ চেয়েছেন পাকিস্তান জামায়াতের আমির। জামায়াতে ইসলামী পাকিস্তানের প্রধান সৈয়দ মুনায়ার হাসান বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে বলেন, বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের আদালত যে রায় দিয়েছে তা ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’। দশ বছর আগে দশ ট্রাক সমপরিমান অস্ত্রের চালান আটকের ওই ঘটনায় জামায়াতের আমির সাবেক শিল্পমন্ত্রী নিজামীর পাশাপাশি আরো ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। এই রায়ের প্রতিবাদে আগামী সোমবার সারা দেশে হরতাল ডেকেছে বাংলাদেশের জামায়াতে ইসলামী, যে দলটি একাত্তরে বাংলাদেশের স্বাধীনতাবিরোধিতায় পাকিস্তানি বাহিনীর পক্ষ নিয়ে ব্যাপক হত্যাযজ্ঞ চালিয়েছিল বলে যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের বিভিন্ন রায়ে উঠে এসেছে। নিজামীর বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের একটি মামলা বর্তমানে রায়ের অপেক্ষায় রয়েছে। স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে বাঙালি নিধনে অংশ নেয়া আলবদর  বাহিনীকে নেতৃত্ব দেয়ার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। পাকিস্তান জামায়াতের এক বিবৃতিতে বলা হয়, মতিউর রহমান নিজামীর বিরুদ্ধে ভারতের বিচ্ছিন্নতাবাদীদের কাছে অস্ত্র ও গোলাবারুদ সরবরাহের ‘একটি মিথ্যা মামলা’ দেয়া হয়েছে। এ মামলায় প্রথমে নিজামীর নাম না থাকলেও পরে তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। “তিনি (মুনায়ার) পাকিস্তান সরকার এবং অন্য সব মুসলিম শাসকের প্রতি এই স্বৈরাচারীর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এবং রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের ওপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দমন-পীড়ন বন্ধে চাপ দিতে বলেছেন।” কোনো ‘সুস্থ-স্বাভাবিক’ ব্যক্তি মতিউর রহমান নিজামীর বিরুদ্ধে অস্ত্র চোরাচালানের অভিযোগ আনতে পারেন না বলেও মন্তব্য করেছেন পাকিস্তান জামায়াতের আমির। জামায়াত নেতাদের বিচার করার পিছনে ভারতের ‘হাত’ রয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। তালেবান জঙ্গিদের সমর্থন করে নিজ দেশে সমালোচিত মুনাওয়ার হাসান দাবি করেন, “নিজামীর বিরুদ্ধে দেয়া আদালতের রায় এরইমধ্যে বাংলাদেশের জনগণ প্রত্যাখ্যান করেছে।” এদিকে নিজামীর মৃত্যুদণ্ডের প্রতিবাদে পাকিস্তানের জামায়াত নেতাকর্মীরা করাচিতে বিক্ষোভ করেছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় দৈনিক জাসারাত। ওই প্রতিবাদ সমাবেশে করাচি জামায়াতের আমির হাফিজ নাইমুর রেহমান বলেন, “পাকিস্তানকে রক্ষার জন্য যারা নিজেদের উৎসর্গ করেছিলেন তাদেরই শাস্তি দেয়া হচ্ছে।” সমাবেশে করাচি জামায়াতের নায়েবে আমির নাসরুল্লাহ শাজি ‘পাকিস্তানের প্রতি ভালোবাসা ও আনুগত্যের জন্য’ জামায়াত নেতাকর্মীদের ‘রক্ষায়’ এগিয়ে আসতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের প্রতি আহ্বান জানান।