জাতীয় পঞ্চগড় রংপুর

গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মত শীত ও পাহাড়ী হিমেল হাওয়ায় জনজীবন বিপর্যস্থ

ডিজার হোসেন বাদশা, পঞ্চগড় প্রতিনিধি : গত দু-দিন ধরে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মত শীত ও উত্তরের হিমালয় থেকে ধেয়ে আসা ঠান্ডা বাতাসে পঞ্চগড়ের মানুষের জনজীবন বিপর্যস্থ হয়ে পড়েছে। এ গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মত শীত আর তীব্র কুয়াশাপাত টানা দু-দিন ধরে চলছে। এ সময় কুয়াশার কারণে ১০ গজ সামনের কিছুই দেখতে পাওয়া যায় না। ফলে রাতে যানবাহন চলাচল কমে গেছে। দিনের বেলায় অনেক যানবাহনকে হেড লাইট জ্বালিয়ে চলাচল করতে দেখা গেছে। গত ৪ দিন ধরে সূর্যের দেখা মিলছে না। সন্ধ্যার পর পরই মানুষ ফিরছেন বাড়িতে। পাহাড়ী হিমেল হাওয়া ও শীতের কারণে অসহায় ছিন্নমুল দরিদ্ররা পড়েছে চরম দূর্ভোগে। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির মত শীত ও ধেয়ে আসা ঠান্ডার কারণে সাধারণ মানুষ ঘর থেকে বাহির হতে ভয় পাচ্ছে। শীতের তীব্রতা থেকে রেহাই পেতে জেলার সাধারণ দারিদ্র শীতার্ত মানুষেরা খরকুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছে। শীতের প্রভাব শুধু মানুষের উপরে পড়েনি পড়েছে গৃহ পালিত পশু-পাখির মধ্যেও। অন্যদিকে শীতকে ঘিরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কম্বল ও শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে। কনকনে শীতের কারণে জেলার শিশু ও বৃদ্ধ বয়সের মানুষ শীতজনিত নানা রোগের শিকার হচ্ছেন। পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, গত চার দিন প্রায় ১৫/২০ জন শিশু শীতজনিত রোগে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে। এ সম্পর্কে পঞ্চগড় সিভিল সার্জন ডা. মোঃ মোজাম্মেল হক বলেন, এই শীতে বিশেষ করে শিশু ও বৃদ্ধরা শীতজনিত রোগের সংক্রমনের শিকার হচ্ছেন। তিনি বৃদ্ধ ও শিশুদের বিষয়ে সর্বদা উষ্ণতায় রাখতে ও সচেতন থাকতে পরামর্শ দিয়েছেন।