চট্টগ্রাম চাঁদপুর জাতীয় প্রধান খবর রাজনীতি

চাঁদপুরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী

 শাহ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম, চাঁদপুর: দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোমেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম নিজেকে চুনোপুটি বলে দাবি করে বলেছেন,
এর আগে চাঁদপুরের যে দু’জন মন্ত্রী ছিলেন ( ডাঃ দীপু মনি এবং ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর) তারা ছিলেন অনেক বড় মাপের মন্ত্রী । তাদের তুলনায় তিনি একজন চুনোপুটি হওয়া সত্ত্বেও চাঁদপুরের উন্নয়নের জন্য যা যা করা দরকার তার সবই তিনি করবেন। তিনি তার কঠোর সমালোচনার আহ্বান জানিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, আমার কোন ভাল দিক সম্পর্কে আপনারা লিখলে লিখবেন। তবে আমার কাজের কোন গাফিলতি হলে কঠোর সমালোচনা করতে ভুল করবেন না। আমি আপনাদের সমালোচনা থেকে শিক্ষা নিয়ে আমার ভুলগুলো সংশোধন করবো। তিনি বলেন, তিনি মাঠের একজন রাজনীতিক। ঢাকার রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে তার নিত্য সাথী সাংবাদিকরা। সাংবাদিকদের সাথে তার রয়েছে নির্মল বন্ধুত্ব। চাঁদপুরের সাংবাদিকরা তাকে ভাল কাজে সহায়তা করবেন বলে তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। তিনি হাস্যচ্ছলে নিজেকে দুর্যোগ বিভাগের মন্ত্রী বলে আখ্যায়িত করে বলেন, দুর্যোগ আসার আগেই এখন ব্যবস্থা নিতে হয়। যাতে দুর্যোগ এলে তা সহজে মোকাবেলা করা যায়। মোফাজ্জল হোমেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম এবার মন্ত্রী হবার পর শুক্রবার প্রথম তার নিজ জেলা চাঁদপুরে এসেই সন্ধ্যায় স্থানীয় সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। ওই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত চাঁদপুর জেলা আ’লীগের সভাপতি ড. মোঃ শামছুল হক ভূইয়া এমপি মায়া চৌধুরীকে হাইব্রিড নেতা নন বলে উল্লেখ করে বলেন, তিনি গণমানুষের নেতা। তাই গণমানুষের আশা আকাংখার কথা তাকে বলতে হবে না, তিনি সে সম্পর্কে যথেষ্ঠ সচেতন। এদিকে মায়া চৌধুরীকে স্বাগত জানাতে শুক্রবার চাঁদপুর সার্কিট হাউজে মানুষের ঢল নামে। শত শত নেতা-কর্মী ফুলের তোড়া হাতে এসে তার জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। তিনি সার্কিট হাউজে এসে পৌঁছার পর তাকে ফুলে ফুলে ভরিয়ে দেয়া হয়।