অপরাধ ঢাকা প্রধান খবর ফরিদপুর রাজনীতি

বোয়ালমারীতে আ’লীগ নেতা-কর্মীদের বাড়ীঘরে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট

ফরিদপুর প্রতিনিধি: ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ ও তার সমর্থিত লোকজনের বাড়ীতে আওয়ামীলীগের অপর একটি গ্র“পের লোকজনের হামলার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার সকালে এ হামলায় অন্তত ২২ টি বাড়ীঘর ও ১২ টি দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়। জানা গেছে, গত ০৮ জানুয়ারী বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদের ভাতিজা মোঃ জাহিদ শেখর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আবুল খায়ের গ্র“পের সমর্থক মোঃ রেজাকে মারপিট করে। মারাতক আহত রেজাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এতে মো. ইস্রাফিল সেখ বাদী হয়ে বোয়ালমারী থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর- ০১/০৯.০১.২০১৪ ইং। এঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার সকাল ০৯:০০ টার সময় আবুল খায়েরের পক্ষের কয়েকশত (৬০০-৭০০) সমর্থক দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোটা নিয়ে হামলা করে। এসময় হামলাকারীরা আবুল কালামের পক্ষের লোকজনের ২২ টি বাড়ীঘর ও ১২ টি দোকান ভাংচুর করে। এঘটনায় উভয় পক্ষের ১৩ জন আহত হয়। গুরুতর বাচ্চু (৪২), আশরাফ (৪৫), সাহাবুল (৩১), ও স্বপন (২৭),কে বোয়ালমারী  উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স -এ ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে বোয়ালমারী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। বোয়ালমারী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ রুহুল আমীন বলেন, পরিস্থিতি বর্তমানে পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিএনপি ও ছাত্রদলনেতা পলাশ ও খায়েরের পক্ষের লোকজন হামলা চালিয়ে বাড়ীঘর ও দোকানপাট ভাংচুর ও লুটপাট করেছে। অপরদিকে শেখর ইউনিয়নের চেয়াম্যান ও উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি রইসুল  ইসলাম পলাশ বলেন, স্থাণীয় আ’লীগের দু’গ্রপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এঘটনায় আমার কোন লোক জড়িত নেই। এ প্রত্রিবেদন লেখা পর্যন্ত কোন পক্ষই থানায় কোন মামলা বা অভিযোগ করেননি।