জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর ফরিদপুর

সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান ইমরানের

 ফরিদপুর প্রতিনিধি,হটনিউজ২৪বিডি.কম:  সাম্প্রদায়িক হামলা, রুখে দাড়াও বাংলা-এ স্লোগান নিয়ে রাজধানীর শাহবাগ থেকে যশোরের অভয়নগরের মালোপাড়ার উদ্দেশে রওনা হওয়া গণজাগরণ মঞ্চের রোড মার্চ শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় ফরিদপুরে পৌঁছায়।স্থানীয় জনতা ব্যাংক মোড়ে ফরিদপুর গণজাগরণ মঞ্চের আয়োজনে অনুষ্ঠিত পথসভায় বক্তব্য রাখেন মঞ্চের মুখপাত্র ডা. ইমরান এইচ সরকার।সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস প্রতিরোধে এই রোডমার্চ উপলক্ষে পথসভায় ফরিদপুর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আমিনুর রহমান ফরিদ সভাপতিত্ব করেন।  বক্তব্য রাখেন, গণজাগরণ মঞ্চের প্রতিনিধি বাপ্পাদিত্য বসু, ছাত্রমৈত্রীর কেন্দ্রিয় সহ-সভাপতি শাওন, ফরিদপুর গণজাগরণ মঞ্চের অন্যতম কর্মী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব অনিমেষ রায়,  মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ, ক্যাপ্টেন বাবুল, এ্যাডভোকেট সুবল সাহা, সাংবাদিক সালামত হোসেন খান, আবু সুফিয়ান চৌধুরী কুশল, শওকত আলী জাহিদ, খন্দকার মোহতেশাম হোসেন বাবর, আক্কাস হোসেন, অধ্যাপক মিজানুর রহমান মানিক, আব্দুল মোতালেব, ডা. রেজাউল আমীন, আবুল বাতিন, জাহিদ ব্যাপারী প্রমুখ।  সন্ধ্যার পর গণজাগরণ মঞ্চের ফরিদপুরের কর্মীদের পাশাপাশি স্লোগান কন্যা লাকী আক্তারের স্লোগানে মুখরিত হয় জনতা ব্যাংকের মোড়। ডা. ইমরান এইচ সরকার তার বক্তব্যে বলেন, “বাংলাদেশকে মৃত্যুকূপে পরিণত করার জন্য জামায়াত-শিবির তাণ্ডবলীলা শুরু করেছে। গণজাগরণ মঞ্চের দুদিনের এই রোডমার্চ কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দেশে সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস নির্মূলের আন্দোলনের সূচনা করা হয়েছে।”যতদিন সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস নির্মূল না হবে ততদিন ঘরে ফিরবে না গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা বলে উল্লেখ করেন তিনি। প্রতি জেলায় পাড়ায় মহল্লায় সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার আহবান জানিয়ে ইমরান বলেন, “নতুন আইন করে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ওপর নির্যাতনকারীদের বিচার করতে হবে।”