জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

জামায়াত ছেড়ে সমঝোতায় আসুন-প্রধানমন্ত্রী

হটনিউজ প্রতিবেদক,৬জানুয়ারি,ঢাকা:  জামায়াতকে ছেড়ে সমঝোতায় আসার জন্য বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টানা দ্বিতীয় দফা বিজয়ের পর সোমবার বিকালে গণভবনের মাঠে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, “নির্বাচনের প্রাক্কালে আমি গণতন্ত্র ও জাতির শান্তি এবং দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য বিরোধী দলকে সন্ত্রাস ও সহিংসতা পরিহার করে রাজনৈতিক সমঝোতার জন্য বারবার আহ্বান জানিয়েছি।… আমি বিরোধী দলের সম্মানিত নেত্রীসহ সকলকে আবার আহ্বান জানাই, সন্ত্রাস ও সহিংসতা পরিহার করে যুদ্ধাপরাধী ও জঙ্গিবাদী জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করে শান্তিপূর্ণ আলোচনায় আসুন।” প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আগামী নির্বাচন সম্পর্কে আলোচনা করেই সমাধান করা হবে। সেজন্য সকলকে ধৈর্য্য ধরতে হবে, সহনশীল হতে হবে এবং সকল প্রকার রাজনৈতিক সহিংসতা বন্ধ করতে হবে।” বিরোধী দলের নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত এবং সন্ত্রাস, সহিংসতা, হত্যা, অগ্নিসংযোগের মাধ্যমে ‘নির্বাচন বানচালের অপপ্রয়াস প্রত্যাখ্যান করে’ জনগণ স্বতস্ফূর্তভাবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছে মন্তব্য করে সরকার, দল ও জনগণের পক্ষ থেকে সবাইকে অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানান আওয়ামী লীগ সভাপতি।   তৃতীয়বারের মতো বাংলাদেশের সরকারপ্রধান হতে চলা শেখ হাসিনা বলেন, “আমি স্পষ্ট করে ঘোষণা করছি, আমার নির্বাচিত সরকারের প্রথম কাজ হবে যে কোনো মূল্যে দেশের জনগণের জানমাল এবং রাষ্ট্রের সম্পদ রক্ষা করা।”এর আগে বিকাল ৪টায় গণভবনের একটি সম্মেলন কক্ষে বিদেশি গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন প্রধানমন্ত্রী। পরে গণভবনের মাঠে খোলা জায়গায় শুরু হয় বাংলাদেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন। সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরও দেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। মানুষ ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে, আমরা কাজ করে যাব। উজানে নাও ঠেলে যাওয়াই তো আমাদের কাজ। আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এক প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, আলোচনার উদ্যোগ আমি নিয়েছিলাম। আমি বার বার উদ্যোগ নিয়েছি, নিজে বিরোধীদলীয় নেত্রীকে টেলিফোন করেছি। এখন ওনার অবস্থা হলো, উনি একুল ওকুল দুই কুলই হারিয়েছেন। গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে আমরা সবার সঙ্গে কথা বলব।